ক্ষেত যখন বড়লোকের ছেলে পর্ব - ৫

#ক্ষেত_যখন_বড়লোকের_ছেলে
#পর্ব_৫
#লেখকঃFahim_Sheikh

রাস্তায় জ্যাম পড়ে গেলাম তখন দেখি একটা বাচ্চা মেয়ে ফুল বিক্রি করতাছে।।
ক্ষেত যখন বড়লোকের ছেলে পর্ব - ৫
ক্ষেত যখন বড়লোকের ছেলে পর্ব - ৫

তারপর,,,,,
মেয়েটি এসে আমার গাড়ির গ্লাস ধাক্কাচ্ছে।।আমি গ্লাস নামিয়ে

মেয়েটির সাথে কথা বলছি তখন দেখি আমার পাশের একটা

গাড়িতে নিধি আর তার বান্ধবিরা বসে আছে। তখনই মেয়েটা

বলল স্যার একটা ফুল নেন না।আজকে একটাও বিক্রি করতে পারি নাই।

আমি- কত করে ফুল।।

মেয়েটা- ১০টাকা স্যার একটা ফুল।।

আমি মেয়েটাকে ১০০০টাকা দিলাম আর নিধিকে উদ্দেশ্য করে

বললাম।।এইখান থেকে ১০টা ফুল ওই মেডামকে দিয়ে আস।।

আর বাকি টাকা তুমি রেখে দেও।।মেয়েটি খুশি মনে মনে চলে গেল।।
যখন গাড়ির গ্লাস নামাতে যাব তখন নিধির বান্ধবিরা আমাকে

দেখে ফেলে ।। তা দেখে আমি দ্রুত গ্লাস উঠিয়ে ফেলি।।

পরে আর তারা আমাকে দেখতে পারে নি। কারণ -গাড়ির গ্লাস কাল ছিল।

যার ফলে বাহির থেকে ভিতরের কিছু দেখা যায় না।।

তারপর সিগ্নাল ছেড়ে দেয় আমি চলে আসি অফিসে।।

সবাই আমাকে স্বাগতম জনায়।।তারপর মেনেজার আমাকে

কেবিনে নিয়ে যান।এবং পরে মিটিং রুমে নিয়ে গেল।।

আমি মিটিং এ মনযোগ দিলাম।।

অপরদিকে নিধির বান্ধবীরা নিধিকে বলছে দোস্ত আমাদের পাশের গাড়িটা দেখিছিস।।

নিধি-হ্যা,দেখিছি।।কি হইসে গাড়িতে।।

বান্ধবী- দোস্ত আমার মনে হল ওই গাড়িতে ফাহিম ছিল।।।

নিধি-তুই কি পাগল হয়ে গেছিস।।

ওই ছোটলোকের কাছে এতো দামি গাড়ি কোথা থেকে আসবে।।

এদিকে আমি মিটিং শেষ করে কেবিনে গিয়ে বসলাম
তখন মেনেজার সাহেব বললেন আজমল সাহেবের
সাথে আজ আমাদের একটা মিটিং আছে সেখানে তার মেয়েও থাকবে।।

তখন আমি মেনেজার সাহেবকে বললাম আপনি কল করে বাবাকে এই মিটিং করতে বলেন আজকে আমার একটা কাজ আছে আমি চলে যাচ্ছি।।

তারপর আমি বাসায় চলে আসি।।

এসে ফ্রেশ হয়ে লাঞ্চ করি।।তারপর দেই একঘুম।।

বিকালে সিয়াম কল দিয়ে বলে এক্ষুনি দেখা করতে কথা আছে।।

আমি উঠে ফ্রেশ হয়ে আড্ডা খানায় চলে যাই।।গিয়ে দেখি সবাই

খুব খুশি।।যদিও আমি জানি তারপরও জিজ্ঞাসা করলাম কি

বেপার তরা তিন বান্দর খুশিতে এভাবে লাফাইতাছস কেন??

তিনজন একসাথে-দোস্ত আমাদের সপ্ন সত্যি হইসে।।

ফাহিম গ্রুপের নতুম এমডির সেক্রেটারি পদে আমাদের নিয়োগ

করেছে সাথে ১০০০০টাকা সেলারি অগ্রিম দিয়েছে।।

কাল থেকে জয়েন করতে হবে।।

আমি- তাহলে ত আজকে আমার ট্রিট চাই।।

তিনজন একসাথে- চল আজকে তোকে ট্রিট দিব।

যেদিন তুই চাকরি পাবি সেদিন আমাদেরও ট্রিট দিতে হবে।।

আমি-আচ্ছা চল।।(কালকে আমাকে দেখলে যে কি করবি যা ভেবেই হাসি পাচ্ছে)(মনে মনে)

তারপর রেস্টুরেন্টে গেলাম। ডুকেই পড়লাম মহাবিপদে,,,,,,,,

আপনাদের সাড়া পেলে নেক্সট পর্ব দিব নয়তো দিব না।।

সবাই নিয়মিত নামায আদায় করুন।।।

(বিঃদ্রঃ ভুলট্রুটি ক্ষমার দৃষ্টিতে দেখবেন)
পোস্ট রেটিং করুন
ট্যাগঃ
About Author

টিউটোরিয়ালটি কেমন লেগেছে মন্তব্য করুন!