ক্ষেত যখন বড়লোকের ছেলে পর্ব - ১৫

#ক্ষেত_যখন_বড়লোকের_ছেলে
#পর্ব_১
#লেখকঃFahim_Sheikh
ক্ষেত যখন বড়লোকের ছেলে পর্ব - ১৫
ক্ষেত যখন বড়লোকের ছেলে পর্ব - ১৫

আমি-সিয়াম আপনার কি হয়🤔🤔🤔


মেয়েটা- আমার বয়ফ্রেন্ড।।।আমাকে খুব ভালবাসে আমিও খুব ভালবাসি।।।

ততক্ষণে সিয়াম চলে এসেছে।।।তারপর আমি জবাকে বললাম- বাকী ওওর থেকে জেনে নিন।।।
আমি সিয়ামের কাছ থেকে সব নিয়ে চলে গেলাম।।।তারপর রেস্টুরেন্টে গিয়ে ব্রেকফাস্ট করে বাসায় চলে আসি।।।।

তারপর কিছুহ্মণ রেস্ট নিই।।।পরে আবার চলে যাই বন্ধুদের সাথে আড্ডা দিতে।।। এর মধ্যে নিধি একবার এসেছিল আমাকে সকালের নাস্তার কথা বলতে।।।

আমি বললাম- আমি খেয়ে এসেছি।।।আমাকে নিয়ে কারও চিন্তা না করলেও হবে।।।কারণ- আমার কাজে কেউ মাথা গামাক তা আমার পছন্দ করি না।।।

এখন বন্ধুদের সাথে আড্ডা দিচ্ছি এমন সময় ফোনটা লাফানো শুরু করে দিয়েছে।। বুঝতাছেন না তো আমি কি বলতেছি।।আরে ভাই মোবাইল বাইব্রেট করা তাই কল দেওয়া কর কাপতাছে😁😁😁

ফোন বের করে দেখি ইতালি থেকে কল এসেছে।।। সেখানে আমাদের যে ছোট ব্রাঞ্চ আছে সেখানে একটা ছোট সমস্যা হয়েছে তাই যেতে হবে।।এইজন্য কল করেছে।।।
আমি বললাম- দুলাভাইকে কল করে বলতে।।কিন্তু তিনারা বললেন যে এমডিকেই যেতে হবে।।এবং আজকেই যেতে হবে।।।
কি এক জামেলায় পরলাম বলেন তো।।।তারপর বন্ধুদের কাছ থেকে বিদায় নিলাম।।বাসায় এসে প্যাক করলাম।।কারণ- প্রব্লেম বেশি হলে ২,৩ দিন থাকতে হতে পারে।।।

মার কাছ থেকে বিদায় নিয়ে বেড়িয়ে পরলাম।।এইবার আমি একাই যাচ্ছি।।বাবাকে জানানো হয় নি।।কারণ -জানলে যেতে দিতেন না।।আজকে আবার নিধিদের বাসায় যাওয়ার কথা+আমাদের রিসিপশন।।।তাই মাকে ভালভাবে বুঝিয়ে রওনা দিলাম ইতালির উদ্দেশ্যে।।।
সন্ধ্যায় ইতালি পৌঁছে গেলাম।।।অফিসের গেস্ট হাওসে গিয়ে ফ্রেশ হয়ে নিলাম।।তারপর কিছুহ্মণ রেস্ট নিলাম।।পরে বাসায় কল করে বললাম যে আমি পৌছে গিয়েছি।।। রাতে শহর ঘুরতে বের হলাম।।।
তারপর ঘুরাঘুরি শেষ করে।ডিনার করে গেস্ট হাউসে পৌছালাম।।।পরে দিলাম একঘুম।।।
সকালে উঠে অফিসে গেলাম।।সেখানে গিয়ে জানতে সমস্যা
সমাধান হতে ২ দিন লাগবে।।।
তাই আমি সেখানে থেকে গেলাম।।আর কাজ শেষ করে দেশে ফিরলাম।।বাসায় জানে না যে আজ আমি ফিরব।।

কিন্তু কে জানত যে ইতালি থেকে এসে আমি বাসায় যেতে পারব না।।সেদিনই এয়ারপোর্ট থেকে ফিরার পথে আনার এক্সিডেন্ট হয়।।।আমাদের গাড়ি ওভারটেক করার সময় সামনে থেকে এসে একটা ট্রাক আমাদের গাড়ীতে ধাক্কা দেয়।।।ফলে আমাদের গাড়ি কিছুটা দূরে গিয়ে ছিটকে পড়ে।। আমার পরনের সাদা শার্ট টা রক্তে লাল হয়ে গেছে।।তারপর মাথা জিম জিম করতে শুরু করল তারপর আর আমার কিছু মনে নেই।।।।যখন চোখ খুললাম তখন নিজেকে হাসপাতালের আই সিউতে আবিষ্কার করলাম।।।
ডাক্তার আমার চোখ খোলা দেখে বলতে লাগল -যাক বাবা তাহলে আপনি কোমা থেকে বের হয়েছেন।।।।

আমি- আমি কে🤔🤔আর কতদিন ধরে আমি এখানে আছি??🤔🤔আর আমাকে কে এখানে এনেছে🤔🤔🤔

ডাক্তার- কুল।।ম্যান কুল।।।
নার্স ওনাকে যে এখানে এনেছে তাকে আসতে বলেন।।বলবেন যে রোগীর জ্ঞান ফিরেছে।।।

আচ্ছা আপনার কি কিছুই মনে নাই।।(আমাকে উদ্দেশ্য করে)

আমি- না।।। কি আমার অতীত???🤔🤔কি আমার পরিচয়???? 🤔🤔🤔
আমার কিছুই মনে পরছে না।।।

ডাক্তারের সাথে যখন কথা বলতেছিলাম তখন দেখলাম নার্সের সাথে একজন মহিলা প্রবেশ করলেন।।তখন ডাক্তারকে জিজ্ঞাসা করলাম যে ওনি কে???🤔🤔🤔

ডাক্তার- ওনিই আপনাকে এখানে এডমিড করেছেন নিজের ভাই দাবি করে।।

আমি- আপনি কি আমার সম্পর্কে কিছু জানেন🤔🤔জানলে প্লিজ আমাকে বলুন🙏🙏🙏(মহিলাটিকে উদ্দেশ্য করে)

তখন পাশে থেকে একজন বললেন - ডাক্তার ওনার কি স্মৃতি নষ্ট হয়ে গেছে।।।

ডাক্তার-জ্বী।।। ওনি ওনার আগের সব স্মৃতি ভুলে গেছেন।।মাথায় গভীর আঘাতের ফলে এমন হয়েছে।।জানি না কতদিন লাগবে ওনার স্মৃতি ফিরতে।।

ভদ্রলোক- আচ্ছা আমরা কি ওনাকে বাসায় নিয়ে যেতে পারব🤔🤔🤔

ডাক্তার-জ্বী এখন ওনি মোটামুটি সুস্থ আছেন।। তাই ওনাকে নিয়ে যেতে পারবেন।।।।

ভদ্রলোক-আচ্ছা স্মৃতি ওনাকে বল রেডি হতে আমি ডাক্তারের কাছ থেকে ডিসচার্জ নিয়ে আসছি।।।।

তারমানে এই আপুর নাম স্মৃতি।। (আমি মনে মনে)
আচ্ছা আমি কি আপনাকে আপু বলে ডাকতে পারি।।আপনি মনে হয় আমার আপুর বয়সী হবেন।।তাই বললাম।।

স্মৃতি আপু-আচ্ছা তুমি আমাকে আপু বলেই ডেকো।।।আর ওনি আমার স্বামী মানে তোমার দুলাভাই।।(ভদ্রলোককে দেখিয়ে)

আমি-আচ্ছা আপু।।আর ওই যে পিচ্চিটা কে🤔🤔🤔
আপু -আমার ছেলে মানে তোমার ভাগিনা।।ঠিক আছে।।এখন তাড়াতাড়ি তৈরি হয়ে নেও।।এখন আমরা বাসায় যাব।।

আমি- কার বাসায় যাব আমরা🤔🤔

আপু- আমার বাসায় যাবা এখন।। সেখানেই থাকবে যতদিন তোমার স্মৃতি ফিরে না আসে।।।

আমি- আচ্ছা।।।আমি রেডি হচ্ছি।।

তারপর দুলাভাই ডিসচার্জ নিয়ে আসিলে আমরা বেড়িয়ে পড়ি স্মৃতি আপুর বাসার উদ্দেশ্যে।।।

(এখন স্মৃতি আপুর পরিচয় দেওয়া যাক,,
স্মৃতি আপু আমার ফেসবুক ফ্রেন্ড ওনি আমাকে ছোট ভাইয়ের মতো দেখেন।।ওনার হাসবেন্ড একটা ঔষধ কম্পানিতে চাকরি করেন।।ওনার একটা ছেলে আছে।।বাকীটা বলা যাবে না)

দীর্ঘ ১ ঘণ্টা পর আমরা আমাদের গন্তব্যে পৌছালাম।।।
আপুর বাসা ডুকতেই মাথা কেমন যেন ব্যাথা করা শুরু হল।।কিছু আমার মনে পড়তে চাচ্ছে কিন্তু মনে করতে পাচ্ছি না।।
আপু আমার এই অবস্থা দেখে বললেন যে-ভাই তুমি ঘরে গিয়ে রেস্ট নেও।।তারপর।আমাকে।একটা রুম দেখিয়ে দেওয়া হল।। আমি ওইটাতে গিয়ে রেস্ট নেওয়ার জন্য শুইলাম।।। কিছুক্ষনের মধ্যে ঘুমিয়ে গেলাম।।।ঘুমের মধ্যে দেখলাম আমি একটা মেয়েকে প্রপোজ করতেছি।।পরে মেয়েটি আমাকে থাপ্পড় দিয়ে চলে যায়।। কিন্তু মেয়েটার মুখ স্পষ্ট হচ্ছে না।।।
তখন আমি লাফ দিয়ে ঘুম থেকে উঠে যাই।। সাথে চিৎকার করে বলি তুমি আমার ভালবাসা ফিরিয়ে দিলে পরে পস্তাবে।।
আমার চিৎকার শুনে তৎহ্মণাৎ স্মৃতি আপু ও দুলাভাই চলে এলেন আমার রুমে।।।

অর্জিনাল লেখকের গল্প পড়তে #অসমাপ্ত_কাব্য_লেখক পেজে লাইক করুন।।।।

এসে আপু জিজ্ঞাসা করলেন ভাই কি হয়েছে চিৎকার করলি যে।।

আমি-আপু ও আমার ভালবাসা রিজেক্ট করেছে😔😔😔

স্মৃতি আপু- কে তকে রিজেক্ট করেছে🤔🤔🤔

আমি-তার মুখ স্পষ্ট দেখতে পাই নি।।

আপু- আচ্ছা ভাই তুই মনে হয় খারাপ স্বপ্ন দেখেছিস।। যা ফ্রেশ হয়ে আয় একসাথে সবাই লাঞ্চ করব।।

তারপর আমি চলে গেলাম ফ্রেশ হতে।।ফ্রেশ হয়ে নিচে গিয়ে সকলের সাথে বসে লাঞ্চ করলাম।।।
তারপর আবার কিছুক্ষণ রেস্ট নিয়ে ভাগিনাকে নিয়ে বের হলাম তাদের এলাকা ঘুরে দেখতে।।সারাবিকাল ঘুরে সন্ধ্যায় বাসায় আসলাম।।।তারপর আপু আমার হাতে একটা ফোন আর একটা মানিব্যাগ আমার হাতে দিয়ে বললেন যে এক্সিডেন্ট এর সময় আমার সাথে এই গুলা + একটা সুটকেস ছিল।।।

মোবাইল হাতে নিয়ে দেখি ফ্রিংগার লক সিস্টেম+ প্যাটার্ন লক করা।।।কিন্তু এর প্যাটার্ন কি তা আমি জানি না।।।আর ফোনেও চার্জ কম।। তাই।ফোনটা চার্জে দিলাম।।আর মানিব্যাগ দেখতো লাগলাম।।এটাতে হাজার তিরেশেক টাকা আছে আর বাকীসব এটিএম কার্ড।।।
তখন চিন্তায় পরে গেলাম কে আমি আমার কি পরিচয়🤔🤔আর আমার কাছে এতো এটিএম কার্ড কোথা থেকে আসল।।
🤔🤔🤔🤔
এসব চিন্তা করতে করতে আবার মাথা ব্যাথা শুরু হয়।।তখন ঘুমের মেডিসিন নিয়ে ঘুমিয়ে পড়ি।।

তারপর আবার স্বপ্নে দেখি,,,,,,,,,,,,,

আপনাদের সাড়া পেলে নেক্সট পর্ব দিব নয়তো দিব না।।

সবাই নিয়মিত নামায আদায় করুন।।।

(বিঃদ্রঃ ভুলট্রুটি ক্ষমার দৃষ্টিতে দেখবেন)
পোস্ট রেটিং করুন
ট্যাগঃ
About Author

টিউটোরিয়ালটি কেমন লেগেছে মন্তব্য করুন!