Love story - ভালোবাসার গল্প দুষ্টু ভালোবাসা

#দুষ্টু_ভালোবাসা
#অভ্রনীল
প্রতিদিনের মতো আজও শীতলের দোকানে আড্ডা মারতে মারতে হঠাৎ রোমান....
-- দোস্ত বিনোদ কে? (রোমান)
-- জানিনা দোস্ত, হবে হয়তো তোর কোনো বড়ো ভাই। (আমি)
-- ফান করছিস কেন?
-- আবে আমি কেন ফান করবো? শালা আমি নিজেই জানিনা এই বিনোদটা কে?
শালা এই দু তিনদিন ফেসবুকে এক নতুন চুলকানি এসেছে সেটা হলো বিনোদ, বাট এই বিনোদটা কে? এখনো এর জবাব পাইনি।
শালা যার সাথেই বসছি সেই জিজ্ঞাসা করছে বিনোদ কে?
হঠাৎ সিয়াম এসে....
-- দোস্ত বিনোদ। (সিয়াম)
আমি আর রোমান সিয়ামের কথা শুনে চারিদিকে তাকিয়ে....
-- কই এখানে বিনোদ নামে তো কেউ নেই। (আমি)
সিয়াম হেসেহেসে...
-- আবে বিনোদ ফেসবুকের এখন ভাইরাল ক্যারেক্টার 😂
আমি রেগে...
-- শালা কুত্তা, ওর নাম যদি আর একবার মুখে এনেছিস তোর পাছাতে এমন লাথি মারবো সোজা পাগলা গারদে পড়বি।
এটা বলাতে সিয়াম হোহো করে হেসে উঠলো।
সিয়ামকে আমি এবার চুল ধরে মার‍তে থাকলাম, হঠাৎ রোমান...
-- অভ্র....(রোমান)
-- কি হয়ছে? আমাকে এখন ডিস্টার্ব করবি না, আজ এই সিয়ামের বাচ্ছাকে মেরে তক্তা বানিয়ে দেবো। 😡😡😡😡(আমি)
-- দোস্ত বিনোদ কে তার উত্তর পেয়ে গেছি।
-- রোমান আর একবার মুখে নামটা নিলে ভালো হবে না বলছি 😡😡😡
শালা সারাক্ষন এই বিনোদ বিনোদ বিনোদ, এই বিনোদটা কে?
এতোটুকু খবর পেয়েছি যে ৭টা লাইক আর একটা কমেন্টে ভাইরাল হয়ে গেছে। কই আমার তো মোটামুটি লাইক কমেন্ট পড়ে, কই আমাকে তো কেউ ভাইরাল করছে না। শালা কপালটাই খারাপ.....
রোমান আঙুল তুলে...
-- ওই দেখ মাইয়াটাকে দেখছিস...
আমি চোখ তুলে তাকিয়ে...
-- জ্বি, তো...

Love story - ভালোবাসার গল্প দুষ্টু ভালোবাসা
Love story - ভালোবাসার গল্প দুষ্টু ভালোবাসা


-- ওই মাইয়াটা আমাদের মহল্লায় নতুন, আর অনেক মর্ডান ও হয়তো এসবের ব্যাপারে জানবে সিউর।
-- তো আমি কি করবো?
-- আবে শালা তোকেই তো জেনে আসতে হবে কে ওই বিনোদ।
-- দেখ ভাই যেই বিনোদ হোক আমার কিছু যাই আসে না। তবুও আমি কোনো মেয়েদের সামনে যেতে পারবো না।
-- দোস্ত তুই না বলছিস ছি তোর মুখে এসব মানাই না। তুই হলি এটোম বোমা, যার কাছেই যাবি সেই পটে যাবে।
হিহিহি এটা অবশ্য রোমান ঠিক কথা বলেছে, আমি মেয়েদের সাথে প্রচুর মিষ্টি ভাবে কথা বলতে পারি 😊 তাই মেয়েরা খুব তাড়াতাড়ি না হলেও আস্তে আস্তে বশে চলে আসে।
এই ভাইয়ারা আপনারা আবার ভাবেন না আমি কোনো বশীকরণ করি।
আমি সিয়ামকে ছেড়ে হেসেহেসে...
-- দূর শালা কি যে বলিস, আমি ওসব পারি না তো। (আমি)
সিয়াম তখনই...
-- আবে রোমান ছাড়তো, এই পোলার কোনো সাহস নেই।(সিয়াম)
-- সিয়াম তুইও রোমানের দলে, শালা একটু ধরে মারলাম বলে। 😞😞 আম্মু ঠিকই বলে পৃথিবীতে কেউ কারোর আপন নয় সেটা আজ তোরা বুঝিয়ে দিলি।
রোমান আমার পিঠে হাত বুলিয়ে...
-- ভাই তোকেও ভাইরাল করে দিতে পারে ওই মাইয়া। বিনোদের মতো। তোর তো শখ আছে তাই না যে তোকে সবাই চিনুক।
ভাইরে ভাইরাল শব্দটা শোনার সাথে সাথে আমার মনটা ফুর ফুর ফুর করে উঠলো, আমি উঠে সোজা ওই মেয়েটার দিকে এগিয়ে গেলাম।
মেয়েটার সামনে এসে হাত বাড়িয়ে....
-- হাই আমি অভ্র। (আমি)
মেয়েটা আমার দিকে কেমন ভাবে তাকিয়ে...
-- সরি... (মেয়েটি)
-- জ্বি আমি অভ্রনীল।
আমি এখনো হাত বাড়িয়ে দাঁড়িয়ে আছি...
-- কে আপনি?
-- সেটা বড়ো কথা নয়।
-- এই এই আপনি যেই হন না কেন? ডিস্টেন্স মেনটেন করুন
-- কেন?
-- আপনি জানেন না আমাদের দেশে কি রকম ভাইরাসের প্রকোপ চলছে। দূরত্ব বজায় রাখুন প্লিজ। আবার মুখে মাস্কও নেননি।
শালা এই মাইয়া তো বিরাট মর্ডান দেখি। 😱😱😱😱😱
আমি একটু দূরে সরিয়ে....
-- আচ্ছা দূরেই এলাম, এবার তো বলতে পারি
-- জ্বি বলেন....
মেয়েটাকে দেখে তো বেশ মাশাল্লাই মনে হচ্ছে কিন্তু মাস্ক লাগানো আছে মুখে, শালা কিভাবে খুলাতে হয় সেটা এই পিচ্চি পণ্ডিত ভালো করেই জানে।
-- আপনার মাস্কের উপরে কি যেন একটা চলছে।
ভাইরে এটা বলার সাথে সাথে ভয়ে আমাকে জড়িয়ে ধরে...
-- আম্মু গো বাঁচাও বাঁচাও।
আহ কি সুখ, হাগ করার সাথে সাথেই যেন ৪৪০ ভোল্টের একটা শকড খেলাম, আল্লাহ এরকম শকড যেন প্রতিদিন খেতে পারি।
মেয়েটি আমাকে জড়িয়ে কাঁপছে, আমি আস্তে করে ওর মুখের মাস্কটা খুলতেই, শালা আমি তাকিয়েই রয়ে গেলাম। উফ আল্লাহ কি সুন্দর জিনিস বানাইছে রে আল্লাহ 😍😍😍 যাকে বলে আকাশ থেকে চাঁদ মাটিতে নেমে এসেছে। মেয়েটার গালে হাল্কা টোল, টানা টানা দুটি চোখ তাতে হাল্কা কাজল লাগানো আর দুটো স্ফর্ট ঠোঁট, উফ আল্লাহ 😍😍😍😍😍😍😍 আমি তো ভাই পুরাই ক্রাশ খেয়ে গেলাম।
হঠাৎ মেয়েটা আমাকে ঠিলে দিয়ে....
-- ঠক পোলা একটা, মাস্কে তো কিছুই নেই। 😡😡😡😡(মেয়েটি)
-- জ্বি কিছুই নেই তবে চাঁদকে দেখার জন্য এতোটুকু মিথ্যা তো বলতেই হয় নাকি? (আমি)
মেয়েটি আমার দিকে রাগী লুক দিয়ে....
-- দেখুন আমি আপনাকে চিনি না আর আপনার সাহস কিভাবে হয় আমাকে জড়িয়ে ধরার।
-- সরি আমি আপনাকে ধরিনি আপনিই আমাকে জড়িয়ে ধরেছিলেন। 😛
মেয়েটি আমতাআমতা করে...
-- তা তা তা ঠিক কিন্তু আপনি যে আমাকে মিথ্যা বললেন।
-- বললাম না চাঁদকে দেখার জন্য একটা কেন দশটা মিথ্যা বলতেও প্রস্তুত আছি।
মেয়েটি হাল্কা হেসে আবার রাগী লুক দিয়ে যেতে চাইলে...
-- ওই মেয়ে দিনে চাঁদ কখনো বাইরে বের হয় না চাঁদের গায়ে দাগ পড়ে যেতে পারে, তাই প্লিজ আপনি বাইরে বের হবেন না।
মেয়েটি মুখ বাকিয়ে...
-- তাতে আপনার কি?
-- কি মানে? আমি যে ক্রাশ খাইছি তাই তো এতো কেয়ার করছি। আর হ্যাঁ টাকা দেন?
-- মানে?
-- এই যে আমি ক্রাশ খেলাম তার জন্য টাকা।
-- ওহ ওয়েট দিচ্ছি...
এবার দেখি মোবাইলটা অন করলো, যাহ শালা সত্যি সত্যিই টাকা দেবে নাকি নাম্বার, আল্লাহ গো এ তো মেঘ না চাইতেই বৃষ্টি। 😉😉😉
-- টাকা দিতে হবে না নাম্বার দিলেই হবে...
মেয়েটি হাল্কা হেসে...
-- ওয়েট...
দেখি কাকে যেন ফোন করে ডাকলো।
হায় আল্লাহ একটা বডি বিল্ডার ভাইয়া দেখি সামনের বাসা থেকে বাইরে বের হলো, মানে আমাকে মারার জন্য ডাকেনি তো।
আমি তো ভাই পুরাই বেহুশ হচ্ছি আস্তে আস্তে।
অভ্র আপন প্রান বাঁচা যেভাবে হোক, এই বডি বিল্ডার পোলা যদি তোকে একবার পায় তোর হাড্ডি ভেঙে ওই রাস্তার কুত্তাকে খাইয়ে দেবে।
আমি এবার মেয়েটির সামনে কান ধরলাম, শালা কখনো কোনো স্যার ম্যামের কাছে আজ পর্যন্ত কান ধরিনি শুধু বেতের ঘা খাইছি আজ এই মাইয়ার সামনে ধরতে হচ্ছে। বলে না সময় খারাপ চললে পোলার পেট থেকে পোলা ডেলিভারি হয়।
আমি মেয়েটিকে এবার...
-- এই এই এই ওটা কে? এই আমি কানে ধরেছি আমাকে মারবেন না প্লিজ 😭😭😭😭 (আমি)
মেয়েটি হেসেহেসে...
-- ভাইয়া তাড়াতাড়ি আসো।
ভাইরে আমি যে ছুটে পালাবো কিন্তু তাও উপায় নেই কারন ওই যে পোলা শালা আমাকে লাফিয়ে লাফিয়ে ধরে নেবে, যদি না দৌড়ায় তাহলে হয়তো কম খাবো। 😞😞 কি কপাল মাইরি, কুত্তা সিয়াম আর রোমানের জন্য আজ আমার এমন অবস্থা 😡😡😡শালাদের একটাবার পায় কেলিয়ে বৃন্দাবন দেখিয়ে দেবো।
ওই মাইয়ার ভাইয়া কাছে এসে...
-- কি হয়েছে জান্নাত?
ও তারমানে মেয়েটির নাম জান্নাত, বেশ জান্নাতি চেহারা মতো নামটাও মাশাল্লাহ। শালা আবারো ক্রাশ খেলাম। ধুর ক্রাশ খেয়ে লাভ কি এখন তো পিটুনি খেতে হবে আমায়। 😭😭😭😲
আইডিয়া...
আমি ওই বডি বিল্ডার পোলার হাত ধরে...
-- হ্যালো ভাইয়া ভালো আছেন, মহল্লায় নতুন নাকি? কোনো অসুবিধা হলে বইলেন প্লিজ....(আমি)
ওই পোলাটা হেসে হেসে...
-- জ্বি ভাই অবশ্যই, তা এখানেই তোমার বাসা নাকি।
-- জ্বি ভাইয়া।
আমি মাথা নিচু করে...
-- তা এখানে কি করো?
-- কিছু না ভাইয়া, রাস্তা দিয়ে যাচ্ছিলাম হঠাৎ দেখি আপনার বোন তো এটা..
জান্নাতের দিকে তাকিয়ে...
-- জ্বি...
-- হ্যাঁ জিজ্ঞাসা করছিলাম।
-- ওহ আচ্ছা।
এটা বলে জান্নাতের সাইড দিয়ে বের হয়ে গেলো।
বাহ বেশ ভালো মনে হচ্ছে ওই ভাইয়াটা।
ওই পোলাটা যাবার পর...
-- ফোন করে ডাকলেন দেখলেন তো আমায় কিছু করলো না। 😁(আমি)
-- ও হ্যালো, আমার ভাইয়া যদি আপনাকে পিটুনি দিতো আপনি সোজা উপরে চলে যেতেন, এই তো শরীরের হাল। (জান্নাত)
ভাই এভাবে অপমান সহ্য করা যায় না, আচ্ছা পাঠক ভাইয়ারা আপনারাই বলেন আমি রোগা তো আমার দোষ কি? আমায় নিয়ে কমেন্ট করে সবাই শালা যেমনটা মেয়েদের সব পোলারা করে আর আমাকে তো দুটাই করে। 😞😞😞😞
আমি দাঁত বের করে...
-- বডি থাকলেই সবাই বডি বিল্ডার হয়ে যায় না। 😒😒
-- ওয়েট।
এবার দেখি জান্নাত...
-- ভাইয়ায়ায়ায়ায়ায়ায়া
ওই মা এতো ভাইয়ারে ডাক দেয়, আমি সাথে সাথে...
-- ওই না না না প্লিজ না।
মেয়েটি হেসে...
-- কি সব ফুরিয়ে গেলো...
-- উহু আমি আটা ময়দা ব্যবহার করিনা তাই আমার কোনো কিছু ফুরিয়ে যাওয়ার কথায় নয়। 😎
-- কিহহহহহ
-- না না মানে কিছু না...
-- ওই পোলা...
-- জ্বি বলেন...
-- খুব খারাপ হচ্ছে কিন্তু...
-- জ্বি জানি, আচ্ছা আপনি কি জানেন আপনার জন্য একটা গুড নিউজ আছে...
-- কি?
-- আপনার মনটা আমার হাতে তুলে দিতে পারেন কোনো ভাড়া নিবো না খুব যত্নে রাখবো।
জান্নাত মাটিতে একটা লাথি মেরে 😡😡😡😡😡
-- এই আমি এখনো তোর সাথে কথা কেনো বলছি সেটাই তো বুঝতে পারছি না।😡😡
আমি হেসে...
-- হিহিহি হয়তো আমার প্রেমে পড়ে গেছেন 😜
ভাইরে মেয়েটা সোজা আমার কলার ধরে....
-- এই কুত্তা তোর প্রেমে পড়বো আমি, আমায় দেখেছিস আর নিজেকে একবার দেখ...
-- জ্বি আপনাকে তো এই দেখলাম আর তাতেই ক্রাশ খেলাম, আর আমি নিজেকে রোজ দেখি আর আম্মু আমায় বলে তুই রাজ পুত্রের থেকে কম নয়।
জ্বি ভাইয়ারা আম্মু আমাকে প্রতিদিন এটাই বলে।
ওহ হ্যাঁ আপনাদের তো আমার পরিচয়টা দিতেই ভুলে গেছি আমি হলাম অভ্রনীল, আমি নাম মাত্র কলেজে পড়ি ভাই😭😭😭 শালা এই করোনার জন্য বিগত ছয়মাস কলেজে যাইনি। আর কিছু জানা লাগলে আমার প্রোফাইলে ঘুরে আসতে পারেন।
গল্পে আসা যাক এবার.....
জান্নাত রেগে ফুলে একদম লঙ্কার মতো লাল হয়ে গেছে 😡😡 আমি আস্তে করে ওর হাতটায় টার্চ করলাম কলারটা ছাড়িয়ে নেওয়ার জন্য। ও ভাই এ হাত না তুলো রে 😍😍😍😍😍
আমি আমার হাত ওর হাতে রাখার পরেই আমার গালে একটা থাপ্পড় এসে পড়লো...
-- তোর সাহস কিভাবে কি হয় 😡😡😡😡😡 আমায় টার্চ করার। (জান্নাত)
আমি গালে হাত দিয়ে....
-- সরি।
-- আচ্ছা ভাইয়া....
জান্নাত দেখি চলে যাচ্ছে এবার....
আমি পিছন থেকে...
-- জ্বি বেবি...
জান্নাত পিছনে ফিরে আমার কাছে হনহন করে হেঁটে এসে রেগে...
-- হোয়াট বেবি 😡😡😡 আমি তোর কোন জন্মে প্রেমিকা ছিলাম শুনি 😡😡😡
আমিও একটু ভাব দেখিয়ে...
-- ও হ্যালো আমি আপনার কোন জন্মের ভাই ছিলাম শুনি যে আমাকে ভাইয়া বলছেন...
-- খুব তুই কথা শিখেছিস তাই না... 😡😡
-- আপনার মতো মায়াবী মেয়ে দেখলে শেখার প্রয়োজন নেই এমনিতেই বের হয়ে আসবে এমন কথা।
-- মানে? 😡😡😡
-- এই আপনি একটু হাসুন তো।
-- কেন?
-- আপনার গালে টোল পড়লে আরো বেশি ভালো লাগে। 😍😍
মেয়েটি হাল্কা হেসে....
-- তাই।
হায় রে দিল ঘায়েল কর দিয়া এক মুসকান নে। 😍😍😍😍 আমি থাকতে না পেরে ওর গালের ওই টোল পড়া জায়গায় কিস করে দিলাম শালা নিজের অজান্তেই। তাও আবার জান্নাতকে জড়িয়ে। জান্নাত এবার আমাকে ছাড়িয়ে আমার দিকে যেন কেমন ভাবে তাকিয়ে আছে।
ভাইরে খুব লজ্জা লাগছে আর ভয়ও পাচ্ছে।
জান্নাত কিছু না বলে বাসায় চলে গেলো।
মনে হচ্ছে মেয়েটা পটে গেছে তাই কিছু না বলে চলে গেলো।
আমি বাসায় যেতেই দেখি, ও ভাই 😱😱😱😱 জান্নাতের ভাইয়া এখানে কি করে? 😖😖😖😖😖
তারমানে কি জান্নাত ভাইয়াকে সব বলেছে। ভাইরে আমার আজ বড়ো কপালে বিনোদ, ধুর শালা বিপদ।
আব্বু আমার দিকে আঙুল তুলে...
-- এদিকে আয়, উনি কি বলছেন এসব 😡😡😡😡(আব্বু)
-- কি কি কি বলছে বিনোদ না না আব্বু।
শালা কি যে হচ্ছে সব জায়গাতেই বিনোদ চলে আসছে মুখে। 😭😭 আবার জান্নাতের ভাইয়া, আল্লাহ গো বাঁচাও আমায়। 😞😞😞
#চলবে....
পরবর্তী পর্বের জন্য অপেক্ষা করুন।
পোস্ট রেটিং করুন
ট্যাগঃ
About Author
1 comment
Sort by