রাত যখন গভীর Season:02 Part :19

#রাত যখন গভীর 
#জান্নাতুল মাওয়া মহুয়া 
(jannatul mawa moho)
Season:02
Part :19
************
রাত যখন গভীর Season:02 Part :19
 রাত যখন গভীর Season:02 Part :19


রিনি কিছুক্ষণ চিন্তা করে। তারপর রিনি বলেঃ একটু পর করে উত্তর টা দিচ্ছি। 
এই বলে রিনি রুমে চলে গেল। বেশ কিছুক্ষণ হলো।প্রিন্স রিনি উত্তর এর অপেক্ষাই বসে আছে। 
এমন সময় প্রিন্স আপন মনে বলে উঠে, 
" তুমি আসবে না?
অপেক্ষার প্রহর কি 
শেষ হবে না? 
নাকি আজ দিন ও নিশি পোহাবে।
তুম বিন!!!!!
প্রিন্স তাকিয়ে আছে আকাশে দিকে।বেশ কিছুক্ষণ পর রিনি বেলকনিতে আসে আবার।
রিনি বলেঃ অপেক্ষা করা কষ্টের জানি।তাই দুঃখীত এতক্ষণ অপেক্ষা করানোর জন্য। 
প্রিন্স বলেঃ এই কষ্টের মধ্যে ও সুখ আছে। তাছাড়া কষ্টের পর অবশ্যই সুখ আসে। 
রিনি বলেঃআমি রাজি। দিলাম  আপনাকে আমার জীবন থেকে  আজকের একটা দিন।আজকের দিনে সব আপনার কথা মতো হবে।তবে একটা পারমিশন ছাড়া কাজ করে ফেলছি।আপনার পারমিশন না নিয়ে আপনার গিটার টা নিয়েছি। তাই সরি।
প্রিন্স বলেঃওহে রিনি, no need any permission, 
Always any side,
Anything of mine no need permission for YOU.... 
রিনি বলেঃ তো এখন কি করবো? কি ভাবে শুরু করতে চাচ্ছেন আজকের দিনটা?
প্রিন্স বলেঃ চল।আগে ফ্রেশ হয়ে নাও।একটা ড্রেস রাখসি ওইটা পরবে।আমি ১ ঘন্টা সময় দিলাম।তোমাকে রেডি হতে। আমি ঠিক ১ ঘন্টা পর নিতে আসবো তোমাকে।
রিনি বলেঃ আচ্ছা ঠিক আছে। 
রিনি রুমে চলে গেল। রুমে প্রবেশ করে গোসল করে নেই।তারপর, বিছানায় রাখা কাপড় গুলো দেখছে।রিনি দেখে, বিছানাতে একটা সাদা টপস এবং জিন্স রাখা আছে। 
রিনি টপস এবং জিন্স পড়ে নেই। চুল গুলো হালকা করে খোপা করে।হালকা একটু মেকাপ এবং ঠোঁটের মধ্যে গোলাপি রঙের লিপস্টিক। 
রিনির সাজা শেষ। এমন সময় দরজাতে উঁকি দেয় প্রিন্স।
প্রিন্স বলেঃ তোমার কি শেষ হলো?
রিনি আয়নার দিকে নিজেকে পারফেক্ট করে রেডি হয়েছে নাকি দেখতে দেখতে বলেঃ হুম শেষ। 
রিনি এবার পিছনে ফিরে দেখে।প্রিন্স( ইনতিয়াজ) একটা হলুদ গেঞ্জি গায়ে সাথে জিন্স প্যান্ট। পায়ে সো- জুতো হাতে একটা ঘড়ি। 
রিনি মনে মনে বলেঃ বাহ বেশ মানিয়েছে।তবে মুখে প্রকাশ করমো না! 
মেয়ে রা এমনি অন্তরে অন্তরে পছন্দ করবে।ক্রাশ খাবে তাও সহজে প্রকাশ করতে চাই না।
রিনি লক্ষ্য করে প্রিন্স হা করে তাকিয়ে আছে তার দিকে।
রিনি বলেঃ এই যে মিস্টার। 
এই শুনছেন????
রিনি একটা চুটকী বাজালো। তারপর প্রিন্স নড়ে চড়ে উঠে। 
রিনি বলেঃ কই হারিয়ে গেছেন? আর ওভাবে হা করে কেন তাকিয়ে ছিলেন???মুখে যদি মশা বা মাছি ঢুকে যেতো তখন কি হতো?
তাছাড়া আমাকে এই ভাবে কেউ তাকিয়ে থাকলে লজ্জা লাগে। 
প্রিন্স বলেঃ
" শুধু তুমি আছো তাই
আমি কথা খুঁজে পাই।
দূর হতে আমি তাই,
তোমায় দেখে যাই।
তুমি একটু হাসো তাই,
আমি চাঁদর মিষ্টি আলো পাই"
ওরে আমার লজ্জাবতী।।
রিনি বলেঃ এটা নাকি আমার প্রশ্নের উত্তর?
 এতো কাব্যিক কথা বাপু আমি বুঝতে পারছিনা।কোন কথা বুঝতে না পারলে আমার রাগ উঠে। যার ফলাফল আমি চুপচাপ হয়ে যাবো।আপনার সাথে একটা কথা ও বলব না।তখন মনের সুখে একা একা কাটাবেন আজকের পুরো টা সময়। হুহ।
প্রিন্স আবার বলেঃ ওই শোনো,রাগ হলে, অনেকটা ঝগড়া করে নিবে,দরকার হলে মারপিট ও করে নিবে।কিন্তু চুপচাপ হয়ে থাকিও না।তাতে দূরত্ব বাড়ে প্রিয়। 
রিনি বলেঃ এসব কথা না বলি।এখন রেডি তো হলাম কই যাবো?এই বিষয়ে কিছু তো বলেন?
প্রিন্স বলেঃ আগে দুপুরের খাবার টা খেয়ে নি।তারপর বলবো।কই যাচ্ছি। 
দুজনের খাবার শেষ করে। 
প্রিন্স বলেঃ রিনি, দুঃখীত কিন্তু আমরা একটা জায়গায় যবো।তাই তোমার  থেকে আমাকে সেদিন এর মতো জড়িয়ে ধরতে হবে। কি করব বলো এটা ছাড়া অন্য কোন উপায় নেই।
 তবে,মুহূর্তে চলে যেতে পারবো আমি।কিন্তু তোমাকে নিতে হলে এটা একমাত্র উপায়।
রিনি কোন কথা না বাড়িয়ে সোজা এসে প্রিন্স কে শক্ত করে জড়িয়ে ধরে। রিনি স্পষ্ট অনুভব করছে প্রিন্স এর হার্টবিট।রিনি যেন অনুভব করছে প্রতিটি হার্টবিট রিনি, রিনি বলছে।
রিনি মনে মনে বলেঃ এটা আবার হয় নাকি?
এটা আমার নিছক মনের ভুল। 
তবে, 
রিনির এমন কিছু না বলে, বিনা বাক্যে রাজি হয়ে যাওয়া তে প্রিন্স অনেক টা খুশি হলো।তাছাড়া আজ প্রিন্স বড্ড আকৃষ্ট হচ্ছে রিনি প্রতি। কারণ,  রিনির চোখ, রিনির ড্রেস আপ বড্ড কাছে টানছিল প্রিন্স কে।
 প্রিন্স রিনির চুলের ঘ্রাণ পাচ্ছে। প্রিন্স এর মনে উতালপাতাল ভালো লাগা কাজ করছে। সেই চুলের ঘ্রাণের সৌরভের জন্য। 
প্রিন্স মৃদু স্বরে বলেঃ
" i love  your eyes 
I love your smile 
I cherish your ways
And i adore your
Style. You are 24/7
On my mind,even 
When i sleep!  Good 
Night and sleep light. 
রিনি সব শুনতে পারছে।কারণ রিনির মাথা টা প্রিন্সের বুকের সাথে আষ্টেপৃষ্টে মিশে গেছে। 
ফলে প্রিন্স এর মৃদু স্বরে বলা কথা স্পষ্ট শুনতে পেল রিনি।
প্রিন্স বলেঃ রিনি আমরা চলে এসেছি। তবে তোমার চোখ জোড়া বন্ধ করো।আমি যখন বলবো তখন খুলবে।
প্রিন্স রিনির চোখ জোড়া বন্ধ করে রেখেছে। 
প্রিন্স বলেঃ রিনি চোখ জোড়া খুলে দেখো। 
রিনি চোখ জোড়া খুলে দেখে। চারপাশে ঘনসবুজ অরণ্য। পাশে দুটা চেয়ার রাখা সাথে একটা টেবিল। সেই জায়গা তে বেলুন দিয়ে সাজানো হয়েছে। তার থেকে আরেক টু দূরে আগুন জালানোর জন্য কাঠ সংগ্রহ করে রাখা আছে।আর আছে একটা ছোট তাবু।  
প্রিন্স বলেঃ একটু পর রাত ঘনিয়ে আসবে।চল কিছু রান্না করে নি।
দুজনে মিলে রান্না করছে তাবু তে ।ওদের এই অবস্থাই যে কেউ দেখলে বলবে, তারা একটা সুখী দাম্পত্য জীবন কাটাচ্ছে। কিন্তু সত্যি টা যে বড্ড থেঁতো।
প্রিন্স বলেঃ রিনি তুমি সব ঠিক আছে নাকি দেখো আমি একটু বাইরে যাচ্ছি।তাবু থেকে । 
প্রিন্স গেছে অনেক্ক্ষণ হলো। কিন্তু এখন ও ফিরে আসে নি।তাই রিনি তাবু থেকে বেরিয়ে আসে। কিন্তু একি এইরকম বিদঘুটে অন্ধকার কেন?
রিনির অন্ধকার কে ভয় লাগে। 
রিনি বলেঃ কই আপনি? 
আমার কিন্তু ভয় লাগছে? 
প্রিন্স একটা হাত তালি দেয়। সাথে সাথে কিছু মোমবাতি জ্বলে উঠে আরেকটা হাত তালি দিতেই পুরো জায়গার মধ্যে মোমবাতি জ্বলে উঠে। 
মোমবাতির আলো তে আলোকিত হয়ে গেছে সম্পূর্ণ জায়গা টা।
রিনি মুগ্ধ নয়নে দেখছে সব।রিনি রীতিমতো সারপ্রাইজ পেয়ে খুশি হয়ে গেছে। 
সারপ্রাইজ পেতে সবার ভালো লাগে। রিনির ও ব্যাতিক্রম হলো না।তার ও পছন্ড ভালো লেগেছে। 
প্রিন্স বলেঃ মেম আপনি চেয়ারে বসেন।আমি খবার পরিবেশন করে দিচ্ছি। 
রিনি বসে আছে। প্রিন্স খুব সুন্দর করে সব পরিবেশন করেছে।নিস্তব্ধ রাত,খোলা আকাশের নিচে, চারপাশে মোমবাতির আলোতে দুজন মানবি বসে রাতের খাবার খাচ্ছে। খুব সুন্দর একটা মনোরম দৃশ্য ফুটে উঠেছে। 
দুজনের খাবার শেষ করে। প্রিন্স আরেকটা হাত তালি দেয়। মোমবাতি নিভে গেছে। আরেক বার হাত তালি দিতেই সংগ্রহ করে রাখা কাঠের মধ্যে আগুন জ্বলে উঠে। 
প্রিন্স বলেঃ চল রিনি।ওইখানে বসি।
দু'জনে বসে আছে খোলা আকাশ নিচে।সামনে জ্বলছে আগুন। প্রিন্স আড়চোখে রিনিকে দেখছে।আগুনের লাল শিখাতে রিনি মুখখানা আরো সুন্দর লাগছে। রক্তিম একটা আভা ফুটে উঠেছে। 
রিনি বলেঃ আমি জানি আপনি গান গাইতে পারেন।একটু দাড়াঁন আসছি বলে তাঁবু তে গেল রিনি।
রিনি গিটার টা নিয়ে আসে।প্রিন্স বলেঃতুমি কেমনে জানলে? গিটার আনছি?
রিনি বলেঃইটস গালর্স  অবজারভেশন।তাছাড়া, আমি এটা আপনার পারমিশন ছাড়া নিয়ে দুপুরে খাবার টেবিলের পাশে রেখেছিলাম যাতে আপনার নজরে পড়ে। 
প্রিন্স বলেঃহুম।  আমি জাদু করে ছিলাম।তারপর অদৃশ্য করে এখানে এনে তাবুতে রেখেছিলাম।
রিনি বলেঃ জি আমি অনুমান করেছিলাম। জাদু করে গিটার টা আনবেন। 
তারপর রিনি আবার বলেঃ যাক সে কথা।
একটা গান শুনাবেন?
প্লিজ,আমার অনুরোধ টা রাখেন!!!
রিনির অনুরোধ জাস্ট প্রকাশ করেছে।হয়তো প্রকাশ করতে দেরি করেছে, কিন্তু 
প্রিন্স সেটা পূরণ করতে দেরি করে নি।
সাথে সাথে, 
প্রিন্স গিটারে সুর তুলেছে। সুরের তালে তালে গাইছে,,, 
Paas aaye
Dooriyaan phir bhi kam naa hui
Ek adhuri si hamari kahani rahi
Aasmaan ko zameen, ye zaroori nahi
Jaa mile... jaa mile...
Ishq saccha wahi
Jisko milti nahi manzilein... manzilein...
Rang thhe, noor tha
Jab kareeb tu tha
Ek jannat sa tha, yeh jahaan
Waqt ki ret pe kuch mere naam sa
Likh ke chhod gaya tu kahaan
Hamari adhuri kahani
Hamari adhuri kahani
Hamari adhuri kahani
Hamari adhuri kahani
Khushbuon se teri yunhi takra gaye
Chalte chalte dekho na hum kahaan aa gaye
Jannatein agar yahin
Tu dikhe kyon nahin
Chaand suraj sabhi hai yahaan
Intezar tera sadiyon se kar raha
Pyaasi baithi hai kab se yahaan
Humari adhoori kahaani
Humari adhoori kahaani
Humari adhoori kahaani
Humari adhoori kahaani
Pyaas ka ye safar khatam ho jayega
Kuch adhura sa jo tha poora ho jayega
Jhuk gaya aasmaan
Mill gaye do jahaan
Har taraf hai milan ka samaa
Doliya hain saji, khushbuein har kahin
Padhne aaya Khuda khud yahaan...
Hamari adhuri kahani
Hamari adhuri kahani
Hamari adhuri kahani😍
রিনি মুগ্ধ নয়নে তাকিয়ে আছে। রিনি মনে মনে বলছেঃকেমনে এতো সুন্দর করে গাইলো?
ইস গানে কি আনডাচ নে মুজে পাগাল কার দিয়া।
কিন্তু, 
রিনি মুখে কিছু প্রকাশ করেনি।
রিনি শুধু বলেছেঃ ধন্যবাদ অনুরোধ রাখার জন্য। বেশ ভালো হয়েছে।
থাকনা কিছু অনুভূতি লুকায়িত। 
রিনির ধন্যবাদ জানানোর পর,
 প্রিন্স বলে উঠেঃআমার একটা আবদার আছে।মাস্ট বি রাখতে হবে। না জানি কাল হো নাহো।প্লিজ রাখবে তো?
রিনি বলেঃ হুম বলেন।রাখবো।
প্রিন্স বলেঃ তুমি একটা গান শোনাও।কয়েক বছর আগে শুনেছি তোমার স্বরে গান।আজ এই মনোরম পরিবেশে আবার শুনতে চাই। শুনাবে তো?
রিনি বলেঃ হুম। সুর তুলেন।
প্রিন্স গিটার বাজাচ্ছে। রিনি গান শুরু করেছে।
"""কি করে বলব তোমায়
আসলে মন কি যে চায়
কেন সে পালিয়ে বেড়ায়
তোমার থেকেই
কি করে বলব তোমায়
কেন এই মন হাত বাড়ায়
আবারো হাড়িয়ে সে যায়
তোমার থেকেই
তুমি জানতে পারনি
কত গল্প পুড়ে যায়
তুমি চিনতে পারনি
আমাকে হায়...
কি করে বলব তোমায়
আসলে মন কি যে চায়
কেন সে পালিয়ে বেড়ায়
তোমার থেকেই
পথ ভুলে গেছি চলে
দূরের কুয়াশায়
তবু আমার ফিরে আসার
সত্যি নেই উপায়
তুমি আমার জিতের বাজী
তুমি আমার হার
কি করে বলব তোমায়
আসলে মন কি যে চায়
কেনও সে পালিয়ে বেড়ায়
তোমার থেকেই
যদি বলি চোরাগলি মনের যায় কোথায় আসবে কি?
রাখবে কি?
তোমার ওঠা পড়ায়
তুমি আমার জ্বালিয়ে নেওয়া কোন শুকতারা
কি করে বলব তোমায়
আসলে মন কি যে চায়
কেন সে পালিয়ে বেড়ায়
তোমার থেকেই
তুমি জানতে পারনি
কত গল্প পুড়ে যায়
তুমি চিনতে পারনি
আমাকে হায়...
কি করে বলব তোমায়
আসলে মন কি যে চায়
কেন সে পালিয়ে বেড়ায়
তোমার থেকেই।😣
গান শেষ হতেই রিনি প্রিন্সের দিকে তাকাই। প্রিন্স বলেঃ রি.......নি
{***সবাই যে হারে অনুরোধ করলো। মন খারাপ থাকার শর্তে ও লিখলাম। কি লিখছি নিজে জানিনা।তবে,
ধন্যবাদ  জানাচ্ছি আমার betterf কে।কারণ তার সাহায্য ছাড়া আজকের পর্ব টা লেখা অসম্ভব ছিল।। 😍😍*******}
চলবে.......
এরকম রোমাঞ্চকর পরিবেশে প্রিয় মানুষ টার সাথে সময় কাটানোর ইচ্ছে আছে তো??😬😬😬
যদি জামাই টা এমন রোমাঞ্চকর না হয় কি করবেন??😉😉😉
মজার মজার উত্তর চাই।। 😳
** সবাই কে আমার গ্রুপ ( এই শহরে মহুয়ার গল্প)স্বাগতম।  গল্প কেমন হচ্ছে জানাবেন ]
।। 😳
পোস্ট রেটিং করুন
ট্যাগঃ ,
About Author

টিউটোরিয়ালটি কেমন লেগেছে মন্তব্য করুন!