রাত যখন গভীর Season:02 Part :14

#রাত যখন গভীর 
#জান্নাতুল মাওয়া মহুয়া 
(jannatul mawa moho)
Season:02
Part :14
************
রাত যখন গভীর Season:02 Part :14
 রাত যখন গভীর Season:02 Part :14


পুলিশ কে ও  জানিয়েছে।পর মূহুর্তে, অর্ক বলেঃ হাবিব তুই জান্নাত এক সাথে কাজ শুরু কর।সুমির নিশ্চিত কোন বিপদ হয়েছে।না হয়,এতটা সময় হয়েছে চলে আসার কথা। 
রাজা(রশিদ),রানী(লোভা),
শাম্মী মিলে চেষ্টা করছে সুমির অনুসন্ধান করতে। 
রাহাত হুজুর ও সাথে  মুগ্ধ দু'জনে ও  চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে। এমন সময় একটা কল আসে পুলিশ এর কাছ থেকে। পুলিশ বলেঃ মিস সুমি কে।কফির দোকানের থেকে বেরিয়ে আসতে দেখা গেছে।cctv camera তে।তবে জঙ্গল অবধি যাওয়ার ১০ মিনিট পর উদাও।ফুটেজ এ আর কিছু দেখা যাচ্ছে না। ওনার অস্তিত্ব আর দেখতে পাইনি।
কথা টা শুনে সবাই অবাক হয়ে যাই। সবাই বুঝতে পারছে, সুমি নিশ্চিত কোন বড় রকমের বিপদে পড়েছে। সবার চেষ্টা চলাচ্ছে,অনেক রাত অবধি চেষ্টা চলে।সবাই একটু রেস্ট নিয়ে নে।যাতে সকালে উঠে আবার চেষ্টা করতে পারে। সহজে কেউ হার মানবে না।
💮
💮
💮
প্রিন্স রিনি কে ঘুম থেকে ডেকে দিতে এসেছে। রিনির ঘুমন্ত মলিন চেহারা টা বড্ড নিষ্পাপ লাগছে দেখতে। অনেক্ক্ষণ ধরে তাকিয়ে আছে। তখনই, 
প্রিন্স বলে উঠেঃ adaein teri,
Uff allah😍
Chal teri,wallah wallah
Larki tu,masallah
Ek din tu meri hogi insallah😇😇😇👌👌👌
প্রিন্স(ইনতিয়াজ) বলেঃ গুড মর্নিং মেম।কি খাবে রিনি?চা না কফি! 
রিনি মিটমিট করে তাকিয়ে আছে প্রিন্স এর দিকে। রিনি বলেঃ আপনি কি ঘুমাননি নাকি?এত সকাল সকাল যে!
গুড মর্নিং। আমি একটু কফি খাবো।কফি হলেই হবে।
প্রিন্স বলেঃ নাহ ঘুমাইনি।একটা পরী কে দেখছিলাম।অনেক দিন দেখতে পারিনি।তাই ঘুম আসেনি।পরী টা যে আমার ঘুম হারাম করে দিয়েছে। 
আচ্ছা, রিনি নামাজ পড়ে নাও।সময় চলে যাবে।আমি পড়ে নিয়েছি।ফজরের নামাজে নেকি বেশি।তোমার নামাজ শেষ হলে,
তারপর দুজনে মিলে কফি খাবো বেলকনিতে বসে। 
রিনি নামাজ আদায় করে ফেলে। প্রিন্স কফি বানিয়ে নিয়ে আসে। 
প্রিন্স বলেঃ রিনি এই হলুদ ড্রেস পরে কতক্ষণ থাকবে?যাও তোমার রুমে আই মিন তুমি যে রুমে ঘুমাইছিলে সে রুমে একটা সাদা ড্রেস রাখা আছে। ওইটা পরে নাও।সাথে চুল গুলো খোলা রাখবেনা।কারণ তোমার খোলা চুল এর মধ্যে কি জানি মাদকতা আছে। যা আমাকে একটা গুরের মধ্যে নিয়ে যায়। আর রাতে চাদর গায়ে মুড়িয়ে ঘুমাবে। কাপড় একটা ও ঠিক জায়গায় থাকেনা।i hope, u understand it.what do i mean to say?
রিনি তাড়াতাড়ি কাপড় চেঞ্জ করে নেই। প্রিন্স যেমনটা বলেছে তেমন করেই রেডি হয়ে এসেছে। 
প্রিন্স বলেঃ নাও।কফি টা।দোলনা তে বস।সবসময় রিনি একটা কথা মনে রাখবে,সুযোগ হচ্ছে সূর্যোদয়ের মত,বেশি দেরি করলে হারাতে হয়।
রিনি বলেঃ হুম জানি।আপনি নিজের জীবন এর সুখ টা নষ্ট করে ফেললেন।প্রিন্স হয়ে, কেন আমার মতো সাধারণ একটা মেয়ের পিছনে পড়ে আছেন? আপনার জীবনের সুযোগ গুলো হারাচ্ছেন ইচ্ছে করে!
আমার জন্য আপনি, 
কি সুখটা পেলেন?দুঃখ ছাড়া কিছু পেলেন না।। 
ভবিষ্যতে ও দুঃখ পাবেন সুখ পাবেন বলে মনে হয় না। তাই আমাকে বাসায় ফিরিয়ে দিয়ে নিজের মতন করে আপনি নিজের জীবন সাজান। 
প্রিন্স বলেঃ সুখ ভবিষ্যতের জন্য রেখে দেয়ার বিষয় না,বরং এটি বর্তমানের জন্য। তোমার সাথে যে সময় কাটাচ্ছি বা যে সময় কাটাতে পারছি বর্তমানে, আমার কাছে এটা সুখ।এটা আমার কাছে প্রাপ্তি।তাছাড়া এসব কথা বললে আমার রাগ উঠবে কিন্তু। ফারদার এসব আমাকে একদম বলবে না। তবে দুর্বলতা হচ্ছে একটা জায়গায়। কারণ, 
আমার রাগ অনেক, কিন্তু জানি না তোমার সামনে আসলে সব রাগ মাটি হয়ে যাই। 
রিনি বলেঃ সব কিছু মন দিয়ে বিচার করিয়ে না।মস্তিষ্ক দিয়ে চিন্তা করেন।
প্রিন্স বলেঃ মাঝে মাঝে কিছু ক্ষেত্রে মস্তিষ্ক কাজ করে না।বাদ দাও এসব সেড কথা। একটু অপেক্ষা কর।আসছি।
একটু পর প্রিন্স এসে,রিনিকে দু ডজন চুরি দেয়। কাল থেকে এতো ঝাঁক ঝমক চুরি পড়ে আছ।নাও এগুলো পড়।
রিনি বলেঃ আমি নিতে পারবো না। আমার অন্যের জিনিস নিতে ভালো লাগে না।কেউ আমার থেকে দেনা পাবে মতো লাগে। বাসায় ফিরে গেলে সব পরিশোধ করে দিবো।চুরি নিতে পারবো না।দেনা রাখতে ভালো লাগে না। 
প্রিন্স বলেঃ আমি তোমাকে এগুলো উপহার দিচ্ছি। উপহার কখনো ঋণ হয় না উপহার তু মন থেকে দেয়। যার ফলস্বরূপ কোন প্রতিদান চাই না।
রিনি বলেঃ আপনার সাথে তর্কে আমি পারবো না।উপহার গ্রহণ করলাম।
এমন সময় ঝুম বৃষ্টির আগমন ঘটে। দুজনে দু মুখ হয়ে দাঁড়িয়ে আছে  বেলকনিতে। 
বৃষ্টি দেখছে। 
প্রিন্স ছোট ছোট করে বলে, every moment spent with you is like a beautiful dream come TRUE,,,, i love u rini.
ঝুম বৃষ্টি তে প্রিন্সের বলা কোন কথা রিনির কান অবধি পৌঁছে নি।।।।
কেন যে দূরত্ব? 
রিনি কখন আপন করবে প্রিন্স কে?
💮
💮
💮
মহিলা এক মুহূর্তে চলে গেল তার  বান্ধুবীর বাড়িতে।
রাত তখন অনেক গভীর । এমন সময়, তার বান্ধুবী দরজা খুলে দেয়। 
বান্ধুবী জিনটার নাম নিশাত।নিশাত বলেঃ হুহ কি সমস্যা? 
দেখে মনে হচ্ছে, তুই কোন টেনশনে আচিস?কিসের 
চিন্তা তুর বল?
মহিলা সব খুলে বলে। নিশাত বলেঃ তুর চিন্তা অনেক কম।আমার চিন্তার শেষ নেই। 
মহিলা বলেঃ তুর আবার কি হলো?
নিশাত বলেঃ আজকে সকাল ১২ টা দিকে পৃথিবীতে একটা জঙ্গলে ছিলাম।একটা মেয়ে দেখতে পেলাম।চুল খোলা, তাছাড়া ওর ব্যাক্তিগত অসুখ হয়ছে সাথে কোন ধাতব জিনিস আনে নি।আমরা তো এমন মেয়ে দের আক্রমণ করি।তাছাড়া সকাল ১২ টার দিকে আমরা একটু সক্রিয় হয়ে যায়। 
যে মেয়ে এভাবে চলে  তাদের প্রতি নজর থাকে আমাদের। 
কারণ আমরা শয়তান বা খারাপ জিন তাই।
আমি ও আক্রমণ করি সেই মেয়ে টাকে।। কিন্তু মেয়ে টা দাপাস করে মাথা ঘুরে পড়ে যায়।তবে আশেপাশে কোন মানুষ জন ও ছিলনা তাই আমি এখানে নিয়ে আসি।মেয়ে টার সেন্স নেই।তাছাড়া হাতে ব্যথা পেয়েছে? 
এখন মেয়ে টা কে নিয়ে যে কি করব?
এক্সট্রা একটা বোজা।
মহিলা বলেঃ আহারে দেখিতো মেয়ে টাকে।এখন কি অবস্থা। 
মেয়ে টাকে দেখে মহিলার চোখ ঝলমলিয়ে উঠে। ঠোঁটে একটা হাসি। 
নিশাত বলেঃ কি হল? খুশি কেন?
মহিলা বলেঃ বলবো বলবো।মেয়ে টাকে সারিয়ে তুল।তাছাড়া তুই কি মেয়ে টার উপর একটু কি মায়াজাদু করে দিতে পারবি?
নিশাত বলেঃ এটা কি কোন ব্যাপার এখনই করে দিচ্ছি। 
সাথে সাথে............ 
চলবে........
#সারপ্রাইজ কেমন লাগলো??? 😍
****কেউ আপনাদের কিছু দিতে চাইলে আপনাদের ও কি ঋণ মনে হয়???😬😬😬😀
নিজেকে কি ঋণী ঋণী মনে হয়? কমেন্ট করে বলেন।।।
[ গল্প কেমন হচ্ছে জানাবেন ]
?? 😍😍😍😉
(বানান ভুল হলে ক্ষমার দৃষ্টিতে দেখবেন) 
পোস্ট রেটিং করুন
ট্যাগঃ ,
About Author

টিউটোরিয়ালটি কেমন লেগেছে মন্তব্য করুন!