রাত যখন গভীর Season:02 Part :40

#রাত যখন গভীর 

#জান্নাতুল মাওয়া মহুয়া 

#(jannatul mawa moho)

Season:02

Part :40

************
রাত যখন গভীর Season:02 Part :40
রাত যখন গভীর Season:02 Part :40


রিনি,ইনতিয়াজ কে ছেড়ে দেয়। রিনি দেখে তারা দুজন সমুদ্রের তীরে দাঁড়িয়ে আছে। রিনি তো একদম অবাক।
রিনি বলেঃ এখানে কেনো?
আনলেন?
ইনতিয়াজ বলেঃ আমার উত্তর!
চোখে চোখ রেখে উত্তর দিতে হবে।
রিনির চোখে অশ্রু টলটল করছে। ইনতিয়াজ কিছু টা হতভম্ব হয়ে যাই। রিনির চোখে হঠাৎ কেনো অশ্রু সেটা বুঝতে অসুবিধা হচ্ছে ইনতিয়াজ এর।
রিনি, হঠাৎ করে, ইনতিয়াজ এর শার্ট এর কলার টা শক্ত করে ধরে টান দেয়। ইনতিয়াজ একদম রিনির খুব কাছে এসে পড়েছে রিনির টান দেয়ার কারণে।
ইনতিয়াজ বলেঃ কি হয়েছে?
কাজল তো লেপ্টে গেছে?
তোমার চোখ অশ্রু কেন?
আমাকে টান দিলে কেন?
কিছু তো বলো রিনি।।।।
রিনি বলেঃ
নারীর লেপ্টে থাকা কাজলে যদি
ভালোবাসার উষ্ণতা খুঁজে না পাও।
তবে পুরুষ তুমি যায় হও
প্রেমিক হওয়ার যোগ্য নও।
ইনতিয়াজ কিছু টা অবাক হয়ে গেছে। কারণ রিনি ইনডিরেক্টলি বলেছে, রিনি ভালোবাসে।তবে কিছু টা পেচিয়ে বলেছে কথা টা।
রিনি বলেঃ আমার চোখে চোখ জোড়া স্থির করে তাকিয়ে দেখেন,
খোঁজে দেখেন, আপনার উত্তর পাবেন।
ইনতিয়াজ এমন বাহানা করছে যেনো স্পষ্ট কিছু বুঝতে পারে নি।
ইনতিয়াজ বলেঃ আমি বুঝতে পারছি না।স্পষ্ট করে বলো।
রিনি, তখনই আবার ইনতিয়াজ কে টান দিয়ে একদম নিজের ঠোঁটের সাথে ইনতিয়াজ এর ঠোঁট জোড়া ডুবিয়ে দেয়। ইনতিয়াজ যা হচ্ছে তা বিশ্বাস করতে পারছে না। আসলে ইনতিয়াজ কল্পনা ও করে নি।এমন কিছু যে হবে।
রিনি বেশ কিছুক্ষণ পর ইনতিয়াজ কে ছেড়ে দেয়। রিনি এক মনে তাকিয়ে আছে ইনতিয়াজ এর দিকে। তারপর,
রিনি বলেঃ ভালোবাসি। অনেক ভালোবাসি। তাইতো আপনি যে আমার প্রিন্স তা কিছু টা অনুভব করতে পারছিলাম প্রথম সেদিন দেখা তে।
আপনার কিছু আচরণের জন্য কিছু টা কনফিউশান কাজ করছিলো।
তবে,কেনো জানি না।
ওই মেয়ের সাথে আপনাকে দেখলে আমার অনেক রাগ হতো।
আপনি জানেন আপনাকে আমি কতটা মিস করছি?
ইনতিয়াজ মাহমুদ জিন রাজ্যের প্রিন্স,
i love YOU so much . I would love to tell you that you’re my most price possession but I don’t want to own you. I want to belong to you.
ইনতিয়াজ বলেঃ আলহামদুলিল্লাহ, আলহামদুলিল্লাহ, আলহামদুলিল্লাহ অবশেষে আমি পেরেছি।
রিনি জানো, জিলাসি খারাপ না তবে একটা কথা আছে, Jealousy in love might be a medicine but anything in excess will be an overdose.
তাই জেলাসির দিকটা একটো বুঝে শুনে বিবেচনা করবে।
তাছাড়া, রিনি আমি জানতাম তুমি আমাকে ভালোবাসো। সেদিন যখন তুমি আমাকে ফিরিয়ে দিচ্ছিলে,তখন তুমি যদি তোমার মন থেকে জিজ্ঞেস করতে, তাহলে উত্তর পেয়ে যেতে।
রিনি তোমার মাঝে কি জানি আছে,
সবাই কেনো জানি তোমার প্রতি আকর্ষিত হয়ে যাই সে ছেলে হোক বা মেয়ে। আমি এটা ভার্সিটি তে লক্ষ্য করছি।Rini,You are so lovable that you make everyone fall for you within the first few minutes of knowing you.
রিনি বলেঃ তা তো আমি জানি না।আমি কেনো জানি সহজে সবার সাথে সখ্যতা গড়ে তুলতে পারি।আর সেদিন আপনাকে ফিরিয়ে দেয়ার পর থেকে বড্ড মিস করছি।
দুজনের উপর দিয়ে কম ঝড় ঝাপটা যায় নি।আমি আর আপনাকে হারাতে চাইনা।
ইনতিয়াজ বলেঃ রিনি আমি ও চাইনা তোমাকে হারাতে। আমি না একটা জিনিস বুঝতে পারছি না।
রিনি ভালোবাসা তা বাসায় বলো নি কেন?
পালাচ্ছি লে কেন?সেখানে বললে তো এখানে আনতে হতো না।
রিনি বলেঃ আমার লজ্জা লাগছিলো।তাই পালিয়ে যাচ্ছিলাম।তাছাড়া আমি অন্য কিছু চিন্তা করছিলাম।
ইনতিয়াজ বলেঃ কি চিন্তা করছিলা?
রিনি বলেঃ হাসবেন না কিন্তু???
ইনতিয়াজ বলেঃ একদম হাসবো না।
রিনি বলেঃ আমি মনে করেছি, আপনি আমাকে আটকাতে চেষ্টা করবেন। তারপর আটকে ফেলার পর, দেয়াল এর সাথে আমাকে আটকে ধরবেন,
তারপর, আমার চোয়ালে হাত দিয়ে মুখটা উপরে তোলে বলবেন,রিনি বলো আমাকে ভালোবাসো কি না।
কিন্তু হলো টা কি।।।।
তাছাড়া,আপনি আমার প্লেন টা ব্যর্থ করলেন তাই কান্না আসছে।এবং আমার মনের কথা বুঝতে চেষ্টা করছেন না।তাই একদম মনের মাঝে সুনামি চলে এসেছিলো যার ফলে চোখ দিয়ে কান্না।
ইনতিয়াজ বলেঃ পাগলি।আমি চাইছিলাম তুমি কোন দ্বিধা ছাড়া তোমার অনুভূতি প্রকাশ করো।তোমাকে তো আর আমি জোর করতে পারি না।তবে,রিনি তুমি কি জানো তোমার লেপ্টে থাকা কাজল চোখে বেশ মানিয়েছে।
রিনি বলেঃ হয়েছে হয়েছে বেঙাতে হবে না। তাছাড়া একটা জিনিস ভালো হয়েছে!
ইনতিয়াজ বলেঃ সেটা কি?
রিনি বলেঃ আমাকে প্রথম কোথায় দেখছেন?
মনে আছে?
ইনতিয়াজ বলেঃ বাহ রে মনে থাকবে না নাকি?
সমুদ্রের তীরে, ঝাউগাছ এর বাগানে প্রথম মায়াবতী কে দেখেছি।
রিনি বলেঃ জি জি।প্রথম দেখা সাগরে আর আমার মনের কথা ও বলেছি সমুদ্রের তীরে দাঁড়িয়ে।
আর!!!!
ইনতিয়াজ বলেঃ আর!!!
রিনি লজ্জা তে লাল হয়ে যাচ্ছে। আর কিছু বলতেই পারছে না।
ইনতিয়াজ বলেঃ আর আমার মায়াবতী নিজ থেকে সমুদ্রের তীরে দাঁড়িয়ে আমাকে চুম্বন করেছে। তাইতো?
রিনি বলেঃ একদম মুখে কিছু আটকায় না।
ইনতিয়াজ বলেঃ চল একটু হাঁটি। একটু পর চলে যাবো।তোমাকে বাসায় দিয়ে আসতে হবে। তবে...
রিনি বলেঃ চলো হাটি।
তবে কি?
ইনতিয়াজ বলেঃ তবে আমি চাই তোমাকে খুব শীঘ্রই আমার ঘরে মিস রিনি মাহমুদ করে আনবো।।।
রিনি বলেঃ তাই বুঝি?
ইনতিয়াজ বলেঃ জি ঠিক তাই।
রিনি বলেঃ সমুদ্রের তীরে আপনার সাথে হাতে হাত ধরে হাটতে অনেক ভালো লাগছে।
ইনতিয়াজ বলেঃ একটা অনুরোধ করবো?
রিনি বলেঃ কি?
ইনতিয়াজ বলেঃ একটা কি গান শুনতে পারবো?
তুমি রুপে যেমন রূপবতী। গানের গলা ও তেমন অসাধারণ।
রিনি বলেঃ অনুরোধ করতে হয় নাকি?
এমনে বললে ও গাইতাম।তাছাড়া, আমার ভালোবাসার জন্য কি আমি এতটুকু করতে পারবো না নাকি।
ইনতিয়াজ বলেঃ মনে করছি,গাইতে চাইবে না তাই।ধন্যবাদ প্রিয়।
রিনি গান শুরু করে,
Tere saamne aa jaane se
Yeh dil mera dhadka hai
Yeh galti nahi hai teri
Kusoor nazar ka hai
Tere saamne aa jaane se
Yeh dil mera dhadka hai
Yeh galti nahi hai teri
Kusoor nazar ka hai
Jis baat ka tujhko darr hai
Woh karke dikha doonga…
Aise na mujhe tum dekho
Seene se laga loonga
Tumko main chura loonga tumse
Dil mein chhupa loonga
Aise na mujhe tum dekho
Seene se laga loonga
Tumko main chura loonga tumse
Dil mein chhupa loonga
Tumse pehle, tumsa koi
Humne nahi dekha
Tumse pehle, tumsa koi
Humne nahi dekha
Tumhe dekhte hi
Mar jaayenge
Yeh nahi tha socha
Baahon mein teri, meri
Ye raat thehar jaaye
Tujhme hi kahin pe meri
Subah bhi guzar jaaye
Baahon mein teri, meri
Ye raat thehar jaaye
Tujhme hi kahin pe meri
Subah bhi guzar jaaye
Jis baat ka tujhko darr hai
Woh kar ke dikha dunga…
Aise na mujhe tum dekho
Seene se laga lunga
Tumko main chura lunga tumse
Dil mein chhupa lunga
Aise na mujhe tum dekho
Seene se laga lunga
Tumko main chura lunga tumse
Dil mein chhupa lunga
Dil mein jaage jazbaaton ko
Humne nahi roka
Dil mein jaage jazbaaton ko
Humne nahi roka
Teri ore badhe kadmon ko bhi
Humne nahi toka
Tere saath bechaini ko bhi
Aaram sa milta hai
Doob ke tujhme hi toh
Dil yeh sambhalta hai
Tere saath bechaini ko bhi
Aaram sa milta hai
Doob ke tujhme hi toh
Dil yeh sambhalta hai
Jis baat ka tujhko dar hai
Wo kar ke dikha doonga
Aise na mujhe tum dekho
Seene se laga lunga
Tumko main chura lunga tumse
Dil mein chhupa lunga
Aise na mujhe tum dekho
Seene se laga lunga
Tumko main chura lunga tumse
Dil mein chhupa lunga
Dil mein chhupa lunga..
Dil mein chhupa lunga...💮
ইনতিয়াজ বলেঃ মাঝে মাঝে কিন্তু গান শোনার আবদার করবো?😒
রিনি বলেঃ আচ্ছা।
ইনতিয়াজ বলেঃ ধন্যবাদ রিনি।সত্যি আজকের দিন টা এখন থেকে সারাজীবন এর জন্য আমার কাছে স্পেশাল হয়ে থাকবে।রিনি তোমার যখন যা মন চাই আমাকে বলবে।তোমার কষ্ট হলে আমার বুকে মাথা রেখে কান্না করবে।
রিনি বলেঃ অবশ্যই আপনি আমার ভালোবাসা আপনাকে না বললে কা কে বলবো?
ইনতিয়াজ আবার বলেঃ রিনি,যতদিন আমাদের বিয়ে হয়নি। তার মাঝে যে ক'দিন থাকবে। তুমি যদি কোন কারণে কষ্ট পাও তখন একটা কাজ করবে।
রিনি বলেঃ সেটা কি?
ইনতিয়াজ বলেঃ
"কষ্ট হলে গভীর রাতে,
মাথা রেখো চাদেঁর কোলে।
তার চেয়ে বেশি কষ্ট হলে,
চোখ রেখো তারার চোখে।
কষ্ট রেখো না বুকের মাঝে,
পাঠিয়ে দিয়ো আমার কাছে।"
(কবিতা লেখকঃ উর্মি)
রিনি বলেঃ জি মিস্টার।
তো কখন চলে যাবো সমুদ্র থেকে?
অনেক্ক্ষণ ধরে তো সমুদ্রের তীরে হাঁটছি।
হঠাৎ, ইনতিয়াজ রিনির মুখের উপর হাত দেয়। রিনি কিছু টা ইতস্তত হয়ে যাই। পরে বুঝতে পারে। তার মুখে , কিছু চুল এসে পড়েছে। সেগুলো সরিয়ে দিচ্ছে।
ইনতিয়াজ বলেঃ সমুদ্রের নীল রঙের মাঝে, আকাশের নীল রঙের মাঝে।
নীল রঙের কাপড়ে আমার মায়াবতী কে কিন্তু বেশ লাগছে। এতক্ষণ বলিনি কারণ, তোমাকে মন ভরে দেখার লোভ টা সামলাতে পারছিলাম না।
রিনি কিছু টা লজ্জা পেল। রিনি ইনতিয়াজ কে জড়িয়ে ধরে শক্ত করে। আর কানে কানে বলেঃ এবার চলেন ফিরে যায়। বাসায় ও যেতে হবে।
ইনতিয়াজ ও রিনিকে শক্ত করে আঁকড়ে ধরে।চোখের পলকে ইনতিয়াজ এর ঘরে চলে আসে।
রিনি বলেঃ আমি পিচ্চির সাথে দেখা করে আসি।
আপনি গাড়ি বের করেন।
ইনতিয়াজ গাড়ি বের করতে চলে গেল।
রিনি পিচ্চির সাথে দেখা করে। তারপর বিদায় জানিয়ে গাড়ি তে উঠে পড়ে। ইনতিয়াজ গাড়ি চালাচ্ছে। তখনই, রিনি আস্তে করে, ইনতিয়াজ এর গালে একটা ভালোবাসার পরশ দিয়ে দিলো।
ইনতিয়াজ আঁড়চোখে রিনির দিকে তাকালো।
তখনই,ইনতিয়াজ এক হাতে গাড়ি চালাচ্ছে। অন্য হাতে রিনির এক হাত শক্ত করে ধরেছে।
রিনির বাসার সামনে গাড়ি থামিয়ে ইনতিয়াজ। তখনই, ইনতিয়াজ......
💮
💮
মুগ্ধ একদম বেকুব হয়ে গেল। মুগ্ধ কল্পনা ও করেনি।জান্নাত এমন কিছু করে বসবে।জান্নাত এখনও হেসে চলেছে।
মুগ্ধের হঠাৎ করে নজর পড়ে জান্নাত এর হাসির দিকে। বেশ সুন্দর করে হাসে জান্নাত। গালের এক পাশে হালকা টুল পড়ে যায় জান্নাত এর।
দুজন উঠে পড়ে। জান্নাত বলেঃ চলেন আর কিছুক্ষণ ঘোরে নি।তারপর না হয় ফিরে যাবো?
কি বলেন?
মুগ্ধ বলেঃ তোমার ইচ্ছে।
জান্নাত এর ইচ্ছে হচ্ছে প্রকৃতির রূপে হারিয়ে যেতে। জান্নাত চোখ বন্ধ করে, লম্বা করে নিশ্বাস নিচ্ছে। আর কি যেনো অনুভব করার চেষ্টা করছে।
মুগ্ধ বলেঃ জান্নাত প্রকৃতির সুগন্ধি নেয়ার চেষ্টা করছো তাই না?
জান্নাত বলেঃ হুম।
দুজন অনেক টা সময় ধরে জঙ্গলে ঘোরাঘুরি করেছে।অন্ধকার নেমে আসছে তাই তাঁবু তে ফিরে আসে। কামাল, রাবেয়া,সুমি ও রহমান ও ফিরে এসেছে।সবাই যার যার মতো করে মজা করেছে জঙ্গলের ভিতর।
জান্নাত অনেক খুশি। কারণ, এই ঘোরাঘুরি কারণে সুমি ও রহমান এর মাঝে যে দ্বিধা বোধ ছিলো তা কেটে গেছে। দুজনের মনের ভাব প্রকাশ করতে পেরেছে।
জান্নাত মনে মনে বলেঃ আমার বেস্টি সুখে আছে।এটার চেয়ে ভালো কিছু হতেই পারে না।
না জানি আমার সাথে কি হয়?
কামাল বলেঃ সো কালকে আমরা সবাই বেক যাচ্ছি!
অকে!
সবাই বলেঃ হুমমমমমমমম।
রহমান বলেঃ তবে,সব মেয়ে দের জন্য একটা সারপ্রাইজ আছে আমার পক্ষ থেকে। সবাই কাল সকালে ঘুম থেকে উঠার পরেই দেখতে পাবে।
রাবেয়া বলেঃ ওমা তাই।এখন আসো রাতের খাবার শেষ করি সবাই।
সবাই রাতের খাবার শেষ করে ঘুমিয়ে পড়লো। তবে সবার চোখ ফাঁকি দিয়ে। মুগ্ধ বেরিয়ে আসে। বসে আছে খোলা আকাশের নিচে।
মুগ্ধ বসে বসে আকাশের চাঁদ ও তাঁরা দেখছে।
মুগ্ধ এর মন খারাপ। কারণ, কাল থেকে জান্নাত বাসায় ফিরে যাবে।
তারপর, শুক্রবারে সে অন্য কারোর হয়ে যাবে।
মুগ্ধ আপন মনে বলে উঠেঃ আচ্ছা, কোন কি চমৎকার হতে পারে না!
আমার আল্লাহ পাক এর উপর পূর্ণ আস্থা আছে। উনি অবশ্যই আমাকে সাহায্য করবেন।
মুগ্ধের ভালো লাগছে, রাতের দৃশ্য দেখতে।সাথে তো ঝর্ণার জলের শব্দ আছেই।
একটু পর, মুগ্ধ কারোর পদধ্বনির শব্দ শুনতে পেল।
মুগ্ধ পিছনে ফিরে দেখে......
চলবে.....
তারপর বলো,সবাই যে রিনির উপর রাগ করে ছিলে!এখন কেমন লাগলো রিনিকে এমন হঠাৎ প্রপোজ করা?
কমেন্ট করে বলবেন কিন্তু????😨
সবসময়, ছেলে রা প্রপোজ করে, তাই আজ রিনি করলো😁
আপুরা করছিলা কাউকে প্রপোজ?
কমেন্ট করে বলেন!!!
[গল্প কেমন হচ্ছে কমেন্ট করে বলেন প্লিজ ]
(বানান ভুল হলে ক্ষমার দৃষ্টিতে দেখবেন)
পোস্ট রেটিং করুন
ট্যাগঃ ,
About Author

টিউটোরিয়ালটি কেমন লেগেছে মন্তব্য করুন!