বৈধ ভালবাসা পর্ব : ৫

বৈধ ভালবাসা
পর্ব : ৫
গল্পকার : বুড়ি_তিলোত্তমা
নামায পড়ে উঠতেই কে যেন হঠাৎ করে চেঁচিয়ে উঠে বললো, আমি যেন তাড়াতাড়ি নানাজ্বী রুমে যাই""?
আমি দৌড়ে নানাজ্বী রুমে গিয়ে যা দেখলাম তা দেখার জন্য আমি প্রস্তুত ছিলাম না""
আমি তো তাকে দেখেই অবাক হয়ে দাড়িয়ে আছি"! কারন নানাজ্বীর পাশেই সাহিল বসে আছে""!!

বৈধ ভালবাসা পর্ব : ৫

বৈধ ভালবাসা পর্ব : ৫ 


মাশআল্লহ""! আজ সাহিলকে অন্যরকম সুন্দর লাগছে""। নীল কালারের শার্ট, কালো প্যান্ট হাতে গোল্ডেন কালারের ঘড়ি চোখে চশমা সব মিলিয়ে সাহিলকে বেশ সুন্দর লাগছে""! ওনাকে সুন্দর লাগার অন্যতম আরেকটা কারণ হচ্ছে সাহিলের মুখের সুন্দর চাপ দাড়িগুলো""!
!
এর আগে আমি সাহিলকে যে কয়বার দেখেছি, একদম ক্লিন সেভ করা"""। আজ দাড়িওয়ালা সাহিলকে দেখতে অনেক ভাল লাগছে"""।
যে যাই বলুক না কেন, দাড়িতেই পুরুষের আসল সৌন্দর্য প্রকাশ পায়"! কারণ আল্লহর রসূল (সাঃ) বলেছেন, তোমারা দাড়িকে বাড়তে দাও আর মোছকে ছেটে রাখ""! পুরুষের দাড়ি রাখা ওয়াজিব""!
এজন্য কথায় বলে,
নারীর সৌন্দর্য পর্দাতে
পুরুষের সৌন্দর্য দাড়িতে
!
আলহামদুলিল্লাহ ""! সাহিলের এই পরিবর্তনে আমি খুব খুশি হয়েছি""! এখন অবশ্য পুরোপুরিভাবে সুন্নতি কায়দায় দাড়ি রাখেনি"!
ইংশাআল্লহ আশা করি সামনে তা হয়ে যাবে"! খুশির বিষয় অভ্যাস তো করছে""!
!
সাহিল নানাজ্বীর সাথে বসে কথা বলছে""! আমি দরজার সামনে দাড়িয়ে আছি""! সাহিল এখনও আমাকে দেখেনি""! এজন্য আমি ওড়না দিয়ে আমার মুখটা ভালভাবে পেঁচিয়ে নিলাম""! শুধু চোখ জোড়া বের করে রাখলাম""!
আমি রুমের ভিতরে প্রবেশ করার আগে সালাম দিলাম""
আল্লহ তায়ালা বলেন,
হে মুমিনগণ ! তোমরা নিজদের গৃহ ব্যতীত অন্য করো গৃহে গৃহবাসীদের অনুমতি না নিয়ে এবং সালাম না করে প্রবেশ কর না, এটাই তোমাদের জন্য শ্রেয়, সম্ভবত তোমরা উপদেশ গ্রহণ করবে'"! ( সূরা- নূর ২৭)
!
আলসালামু আলাইকুম ওয়া রহমাতুল্লাহ
সাহিল আমার কন্ঠস্বর শুনে মনে হল যেন থমকে গেল""! অবাক নয়নে আমার দিকে তাকিয়ে রইলো"! সাহিলের এমন তাকানোতে আমার ভিষণ লজ্জা লাগছিল""! ভাবছি নানাজ্বী কি যে বলবে"""!
নানাজ্বী আমার সালাম শুনে খুব সুন্দর হাসি মুখে আমার সালামের লম্বা একটা জবাব দিলো""!
!
নানাজ্বী : ওয়া আলাইকুম আসসালাম ওয়া রহমাতুল্লাহি ওয়া বারকাতুহ্ ওয়া মাগফিরতুহ্ ওয়া জান্নাতিহ্""!
!.
নানাজ্বীর আমার সালামের জবাব দিয়ে আমাকে বসতে বললেন""। সাহিল খাটের এক পাশে বসে আছে"! আমি খাটের অপর পাশে গিয়ে বসলাম"""। সাহিল আমাকে শুনিয়ে শুনিয়ে নানাজ্বীকে বলছে""""
!
সাহিল : দাদা এই ভদ্র মহিলা ওনি কে""? ওনি তোমার রুমে কি করছে""?
!
নানাাজ্বী : দাদাভাই এই ভদ্র মহিলাকে তুমি চিনবা না""! এ আমার বান্ধুবী""!
!
আমি : নানাজ্বী আপনি ভদ্রলোককে বলেন, সে আমাকে চিনে না ভাল কথা""। কিন্তু চিনে না বলে আমার সালামের জবাব পর্যন্ত দিলেন না""! ভদ্র মহাশয় কি জানেন না সালামের জবাব দেয়া ওয়াজিব""।
!
সাহিল : দাদা ভদ্র মহিলাকে বলো, আমি তো মনে মনে সালামের জবাব দিয়েছি ""।
!
আমি : না না তা তো হবে না""! সালামের জবাব স্পষ্টভাবে একটু জোরে দিতে হবে""! যাতে করে যে সালাম দিয়েছে সে যেন শুনতে পায়""।
কেন না বেশি সংখ্যক লোক সালামের উত্তর না পেয়ে ""! সালাম প্রদানের প্রতি অনাগ্রহ প্রকাশ করে""!
!
নানাজ্বী : হুম বুবু হক কথা কইছো""!
এখন মানুষকে সালাম দিলে উত্তর দেয় না বলেই"! এখনকার মানুষ সালাম দিতে চায় না""!
!
দিন দিন সালামের প্রচলন কমে যাচ্ছে ""! আজকাল আবার অনেকে এমন ভাবে সালাম দেয়""! কিন্তু সালামের শব্দগুলো সঠিক ভাবে উচ্চারণ করে না""! এরা জানে না আরবী শব্দগুলো উচ্চারণ সঠিক ভাবে না হলে অর্থ ভিন্ন হয়ে যায়""!
!
আর আল্লহ তায়ালা বলেছেন, যখন তোমরা সালাম ও অভিবাদন প্রাপ্ত হয়, তবে তোমরাও তা হবে শ্রেষ্ঠতর উত্তম সম্ভাষণ কর অথবা তার মতই করে অভিবাদন দাও""! কেননা নিশ্চয় আল্লহ সর্ব বিষয়ে হিসাব গ্রহণকারী"!
(সূরা নিসা- ৮৬)
!
সাহিল আমার আর নানাজ্বীর কথা শুনে সুন্দর করে আমার সালামের জবাব দিলো"! আর বললো,
!
সাহিল : এমন ডাকাত টাইপের মানুষ জীবনে দেখিনি সালামের জবাব জোর আদায় করে ""!
!
নানাজ্বী : হুম শুধু কি ডাকাত""! বড় মাপের চোর ও বটে"! শুধু চোখ দেখাইয়া আমার আর নাতির দিলডা চুরি করে নিছে""!
!
আমি : চোর না ডাকাত তা জানি না""। কিন্তু এটা জানি নিজের হক কিভাবে আদায় করতে হয়"! আর জানি নিজেকে কি করে বড় চোরদের নজর থেকে লুকিয়ে রাখা যায়""!
আমি আর নানাজ্বী মৃদু ভাবে হাসছি"'"।
!
সাহিল : জানি তো কেউ কেউ নিজের বুঝ টা খুব ভাল করেই বুঝে""! শুধু অন্যের বেলায় অবুঝ "!
!
নানাজ্বী : না রে দাদা আমার বুবু অবুঝ না"। জ্ঞান বুদ্ধি আছে বলেই নিজেকে শরীয়াতের মাঝে আবদ্ধ রাখতে পারছে"! আজকাল কয়জন মেয়ে তা পারে"""।
!
বেচারা আমাদের দুজনের চাপে অস্থির বলেই চলে"""। কেননা আমি আর নানাজ্বী একদলে""! নানাজ্বী প্রায় সব সময় আমাকে সব বিষয়ে সাপোর্ট করে""!
কারণ নানাজ্বী তিনি একসময় মসজিদের ইমাম ছিলেন""! তাই হাদীসের কোরআনের ব্যাপারে তিনি বেশ ভাল জানা শোনা""! আমিও আলহামদুলিল্লাহ চেষ্টা করি কোরআন সুন্নাহ অনুযায়ী চলতে""!
!
আমি সাহিলের থেকে দূরে দূরে থাকি এই বিষয়টা তার খুব একটা পছন্দ না "! তা আমি বুঝতে পারি""। কিন্তু আমার তো কিছু করার নাই"! যা আল্লহ এবং তার রসূল বৈধ বলে ঘোষণা করেনি ""! তা আমি কি বৈধ ভাবতে পারি"! আমি এতক্ষণ সাহিলের সাথে যতটুকু কথা বলছি তা ও আমার জন্য ঠিক না""।
!
বেচারা সাহিল তো একা পরে গিয়েছে""। এজন্য তো সে তার মনে ক্ষোপ করার জন্য
""ঝোঁপ বুঝে কোঁপ দিল""
!
সাহিল : আচ্ছা দাদা তুমি তো হাদীস কোরআনের বিষয়ে বেশ জানা শোনা"! তবে তুমি থাকতে আমার বিয়ের এই হাল হলো কেন""? অর্ধেক বিয়ে দিয়ে বাকী অর্ধেক ঝুলিয়ে রাখছো""! তাই তো আমার হবু বউ আমার সামনে পুরা পর্দা মেইনটেইন করছে""। কিন্তু তোমার সামনে পর্দা করছে না""!
এটা কি ঠিক ""?
!
সাহিল এতগুলো কথা নানাকে একদমে বলে দিল"! আমি কি আর বলবো"! এ ছেলে তো বিয়ে বিয়ে করে পাগল হয়ে যাচ্ছে""! আল্লাহ জানে"" নানাজ্বী যে আমাকে কি যে বলবে ""? সেই ভেবে আমার গলা শুকিয়ে আসছে""!
!
নানাজ্বী : আমি বুড়া হয়ে গেছি রে দাদাভাই "। এজন্য আমার বান্ধুবী আমার সামনে শুধু মুখটা বের করে"!
দাদাভাই তোর বিয়ের কথা বলে আমারে আর লজ্জা দিস না""। আসলে সেদিন আমি আমার দায়িত্ব ঠিকমত পালন করতে পারি নাই'"। কিন্তু এবার কিছু একটা করবোই ইংশাআল্লহ""!
!
সাহিল : দাদা এখনও কিন্তু কোন কিছু করার সময় যায় নাই"""।
!
নানাজ্বী : হুম তা বুঝতে পারছি"! আমার নাতির আর তর সইছেনা""। বিয়ের জন্য পাগল হইয়া গিয়েছে"! যারে কয় বউ পাগল""।
!
আমি মনে মনে ভাবছি, এরা দাদা নাতি মিলে যে ভাবে বিয়ে বিয়ে প্যাঁচাল পারতেছে""! আমার এখানে না থাকাই ভাল""! এজন্য আমি নানাজ্বীর রুম থেকে চলে আসতে নিলাম""! আমাকে উঠতে দেখে সাহিল বলে উঠলো""!
!
সাহিল : দাদা তোমার নাতবউকে বল, এখানে ভালভাবে বসতে "! তা না হলে আমি কিন্তু হাত টেনে ধরবো""! তখন আমায় যেন কেউ কিছু না বলে""!
!
সাহিলের কথা শুনে আমি থমকে গেলাম""। কারন এ যে লোকের এ কাজ করতে একটুও দ্বিধাবোধ হবে না"! এজন্য আমি খাটের এক কোণায় চুপটি করে বসে রইলাম""!
সাহিলকে উদ্দেশ্য করে বললাম""
!
আমি : নানাজ্বী কেউ কি শুধু এখানে বসে বসে গল্প করবে""? তার কি নামায কালাম কিছু নাই""। আসরের ওয়াক্ত যে চলে যাচ্ছে""!
!
সাহিল : দাদা আমাকে নিয়ে কাউকে ভাবতে না করো""। আলহামদুলিল্লাহ "! আমি এখন পাঁচ ওয়াক্ত নামায পড়ি""। আর যথাযথ চেষ্টা করি মসজিদে জামাতের সাথে নামায পড়তে"! বাড়ি আসার সময় মসজিদে নামায পড়ে এসেছি""!
!
নানাজ্বী : আলহামদুলিল্লাহ""! দাদাভাই আমি তোর কথা শুনে খুব খুশি হলাম""! আমার মনে হচ্ছে সবি মিষ্টি পড়া খাওয়ার ফল"!
!
মাশআল্লহ '"! আমার হবু বর যে ইদানিং পাঁচ ওয়াক্ত নামায পড়া শুরু করছে। পাঁচ ওয়াক্ত নামায পড়ার কথাটা শুনে আমার মনে যেন এক স্বর্গীয় প্রশান্তি পাচ্ছি""! আল্লহ মনে হয় আমার দোয়া কবুল করেছেন""!
সূরা ফোরকানের ৭৪ নাম্বার আয়াতটা খু্ব কাজে দিয়েছে"""!
!
সাহিল : হুম মিষ্টি দেখেই আছোর পড়ছে""।কিন্তু মিষ্টি আর খাইতে পারলাম কই""?
!
আজ আমার এটা ভাবতেই ভাল লাগছে যে, যাকে জীবনসঙ্গী হিসেবে পেতে চলেছি । সে ও আমার মত পাঁচ ওয়াক্ত নামায পড়ার চেষ্টা করছে"""!
আমি মনে মনে নিজেই সাহিলকে কথা দিচ্ছি, আমি যখন #তোমার_বৈধ_আমি হব"! সেদিন থেকে আমি আপনার চক্ষু শীতল করা স্ত্রী হওয়ার চেষ্টা করবো ইংশাআল্লহ"'!
কারন স্ত্রী যদি তার স্বামীর ইসলামিক শরীয়ানুযায়ী সকল আদেশ উপদেশ মেনে চলে ""। তবে সে স্ত্রীর জন্য জান্নাতে যাবার পথ প্রশস্থ হয়ে যায়"!
!
রাসূল (সাঃ) বলেছেন, যখন কোন স্ত্রীলোক পাঁচ ওয়াক্ত সালাত আদায় করবে, রমযানের সিয়াম পালন করবে, নিজের লজ্জা স্থানের হেফাযত করবে এবং স্বামীর আনুগত্য করবে""। তখন সেই নারী জান্নাতের যে কোন দরজা দিয়ে জান্নাতে প্রবেশ করতে পারবে""।
( মিশকাত- ৩২৫৪)
বেশির ভাগ স্ত্রীলোক স্বামী অবাধ্যতার কারণে জাহান্নামে প্রবেশ করবে""!
!
এসব কথা ভাবতে ভাবতে ভাবনার জোয়ারে নিজেকে ডুবিয়ে দিলাম""!
!
নানাজ্বী : কি গো মিষ্টি বুবু এত কি ভাবো""? মিষ্টির গন্ধ পেয়ে আমার নাতি যে ঢাকা থেকে চলে এলো""! এখন তো আমার নাতির জন্য কিছু করা দরকার""!
!
নানাজ্বীর কথা শুনে আমার ভিষণ লজ্জা লাগছে ""! আর সাহিল ও কেমন""। এতদিন যখন আসেনি""। তবে দুটো দিন পড়ে আসলে কি এমন ক্ষতি হত""।
দুই দাদা আর নাতি মিলে আমাকে এখন পঁচাবে"!
আহারে""! কথা টা ভাবতেই আমার সাত সাতটা ননদিনী এসে হাজির"! এসেই তো ভাইকে জারি মারা শুরু করলো""! এ বাড়িতে আমার দলটা বেশ ভারী""! এরা সবাই সাহিলকে দাদাই বলে ডাকে"""।
!
সায়মা : দাদাই তুমি কখন এলে""?
!
সামিহা : দাদাই তোমার ছুটি কয়দিন"'?
!
সারিকা : দাদাই তুমি এতদিন আসলে না কেন""?
!
সায়বা : দাদাই তুমি নিশ্চিত ভাই গন্ধ পেয়ে এসেছ"""? দাদা ঠিক বলছি না''?
!
সাবিহা : হুম আমি জানি দাদাই তুমি এজন্য আসছ না"'?
!
সায়কা : আহারে দাদাই আমার যার জন্য আসছে "! সে তো মুখ ঢেকে আছে "! তোমার বুঝি খুব কষ্ট হচ্ছে তাইনা ভাইয়া"""?
!
সায়লা : দাদাই তুমি ভাবী আর আমাদের জন্য কি কি নিয়ে এসেছ""? যদি কিছু না আসো তবে ভাবীর সাথে তোমাকে আমরা কথা বলতে দিবো না""!
!
বেচারা সাহিল সাত রকম প্রশ্নে জর্জরিত """। সাতবোন তো তীরের মত একের পর এক প্রশ্ন ছুড়েই যাচ্ছে""! কোনটা ছেড়ে কোনটার উত্তর দিবে ভেবে পাচ্ছে না'"। সাহিলরের অবস্থা একদম নাজেহাল ""। আমার বেশ ভাল লাগছে তার নাজেহাল অবস্থা দেখে'"।
!
সাহিল : প্লিজ"! তোরা থাম থাম""! আমার কান তো তোরা ঝালাপালা করে ছাড়বি""! বিয়ে করার আগেই দেখছি কানে কালা হয়ে যাবো""! পরে বউ যা বলবে তার উল্টোটা শুনবো""!
!
সায়কা : কানে কম শুনলে সমস্যা নাই""! কিন্তু চোখে কম দেখলে সমস্যা আছে""!
!
সাবিহা : হুম ঠিক বলছিস""! যার রূপ দেখলে চোখ ধাঁধা লেগে যাবে"! সে তো সেজন্য নিজের চেহারা ঢেকে রাখছে""!
!
সায়বা : দাদাই তোমার জন্য আমার খুব কষ্ট হয়""! ভাবীর সাথে প্রেম করার স্বপ্নটা তোমার স্বপ্নই থেকে গেল''"।
!
সাহিল : হুম ""! কষ্ট আমার হয়"""। কারন তোদের মত সাত সাতটা বোন থাকতে একটা মেয়ের সাথে প্রেম করাতে পারলি না""!
সত্যিই তোদের মত বোন দিয়ে কিছুই হবে না"" তোরা সব দাদার যোগ্য নাতনি"!
!
নানাজ্বী : এই ""! এইগুলার মাঝে আমাকে টানাটানি করছিস কেন""?
!
সায়বা : দাদা তোমাকে টানবে না তো কাকে টানবে"""। তুমি এ পর্যন্ত দাদাইয়ের বিয়েটাই দিতে পারলে না''!
!
সাহিল : সায়বা তুই হচ্ছিস আমার একমাত্র বোন ""। যে আমার কথাগুলো বুঝে ""। আর সব বাকি গুলো তো আমড়া কাঠের ঢেঁকি""!
!
এই কথা বলতেই তো আর বাকি ছয়জন মিলে সাহিলের উপর মৌমাছির মত ঝেঁকে বসলো"।
আমি চুপচাপ এদের ঝগড়ার মজা নিচ্ছি ""! সাহিল এক কথা বলতেই এদের মুখে ১০টা কথা রেডি""!
অবশেষে সাহিল অসহ্য হয়ে সবগুলোকে এমন ধমক দিলো""। সাহিলের ধমকের সুরে আমি সহ সবাই কেঁপে উঠলাম""।
আর বাকিগুলো তো ভয়ে জরসর হয়ে আছে"! যাক বোনগুলো তাহলে ভাইকে দেখে একটু হলেও ভয় পায়'""।
!
মাগরিবের আযান পড়ছে""!
আমি সবগুলোকে বললাম, সন্ধ্যাবেলা শয়তান বেশি ঘোরাঘুরি করে তো""। এখন সবাই চুপ করে নামায পড়তে যাও""! আর হ্যা কেউ জানি আমার ননদের বকাবকি না করে""!
সাহিল আমাকে বললো, আমার ননদের প্রতি আমার এত টান""! কিন্তু যার জন্য এতগুলো ননদ পেলাম তার জন্য কোন টান আমার ""। এ কেমন বিচার""।
!
আমি হেসে বললাম, আসলের চেয়ে নাকি সুদের দাম বেশি হয়""!
এই বলে আমি রুম থেকে বের হয়ে আসলাম"! আমি রুম থেকে বের হতেই নানাজ্বী আর সাহিল ওদের কি যেন বললো"""
সবগুলো তো খুশিতে লাফালাফি শুরু করলো""!
আমি মাগরিবের নামায পড়ে উঠতেই সব গুলো আমার রুমে এসে হাজির"! আমাকে শাড়ী পড়ানোর জন্য পীড়াপীড়ি শুরু করলো""!
আমি তো অবাক হয়ে চেয়ে আছি""! এই অবেলায় আবার শাড়ী কেন""?
চলবে,,,,,,,,,,
পোস্ট রেটিং করুন
ট্যাগঃ ,
About Author

টিউটোরিয়ালটি কেমন লেগেছে মন্তব্য করুন!