ব্যাকলিংক কি ? এক দম ফ্রিতেই ব্যাক লিংক সৃষ্টি করুন !

ব্যাকলিংক কি ? এক দম ফ্রিতেই ব্যাক লিংক সৃষ্টি করুন !


আদাব/নমস্কার। আপনারা সবাই কি রকম 
আছেন তা আজ আর জানতে চাইলাম না। আশা করি সবাই প্রচুর ভাল রয়েছেন আর আমিও ভাল আছি। চলুন তবে আজকের নব বিষয়ে আর্টিকেল চালু 
করা যাক।

ব্যাকলিংক কি ? এক দম ফ্রিতেই ব্যাক লিংক সৃষ্টি করুন !

ব্যাকলিংক কি ? এক দম ফ্রিতেই ব্যাক লিংক সৃষ্টি করুন !

# ব্যাকলিংক কি ?
ব্যাকলিংক কি ওয়েব মাস্টারদের প্রায় সকলেই এটি নানা রকম ভাবে সার্চ ইঞ্জিনের মাধ্যমে জেনে থাকি। কিন্তু যারা জানেন না তাদের জন্য আমি আবারও বলতেছি ব্যাকলিংক হচ্ছে আমাদের ওয়েব সাইটের ইউআরএল ভিন্ন কোন ওয়েব ওয়েবসাইটের সাথে জড়িয়ে দেওয়া।


এটিকে আমরা সাধারন ভাষায় ব্যাকলিংক বলে থাকি। ধরুন আপনার ১টি ওয়েব ওয়েবসাইট রয়েছে ও আপনার ফ্রেন্ডের আরো ১টি ওয়েব ওয়েবসাইট রয়েছে ।

এখন আপনার ওয়েব সাইটের লিংকটি আপনার বন্ধুর ওয়েবসাইটের সাথে সংযুক্ত করেলেন। যে কোন অংশে কিংবা কনটেন্ট এর মাঝে তাহলেই আপনি আপনার ফ্রেন্ডের ওয়েব সাইট হতে ব্যাকলিংক পেলেন। ব্যাকলিংক কি এবং কেমন করে আপনারা নিজের ওয়েব সাইট এর ব্যাকলিংক নিবেন তার ১টি ছোট্ট আন্দাজ আপনাদের মাঝে তুলে ধরেছি।

এখন আমরা আরো কিছু ইম্পোর্টেন্ট বিষয় আপনাদের মাঝে তুলে ধরার চেষ্টা করব যা আপনাদের নিশ্চয়ই সহযোগিতা করবে নিজের ওয়েব ওয়েবসাইট এর ব্যাকলিংক সৃষ্টি করতে।

# ব্যাকলিংক কতিপয় প্রকারভেদ এবং কি কি ?
যারা ইতিমধ্যে ব্যাক ইউআরএল সম্পর্কে জানেন না তাদের মনে হয়তো প্রশ্ন আসতে পারে ব্যাকলিংক কতপরিমাণ শ্রেনীভেদ ও কি কি ?
আমরা নিচে ব্যাকলিংক এর শ্রেণিবিভাগ তুলে ধরেছি। ব্যাকলিংক মূলত দুই প্রকারঃ-

১। নো ফলো
         ও
২। ডু ফলো


# নো ফলো ব্যাকলিংলক কি ?
এর পূর্বেই আমরা বলা হয়ে থাকে দিয়েছি ব্যাকলিংক দুই প্রকার। এখন আমরা ব্যাকলিংক এর একটি শ্রেনীভেদ নিয়ে আলোচনা করতে যাচ্ছি।

নো অনুসরণ ব্যাক ইউআরএল সম্পর্কে সোজা ভাষায় বলতে গেলে আপনি যেকোনো একটি ওয়েবসাইট হতে ব্যাকলিংক নিয়েছেন।

কিন্তু ভিজিটর আপনার ব্যাকলিংক এই ক্লিক করে আপনার ওয়েবসাইটে ভিজিট করতে পারবে তবুও সার্চ ইঞ্জিন সেই লিংকটি ভিজিট করতে পারবে না তো এটি হলো নো ফলো ব্যাক লিংক।

# ডু অনুসরণ ব্যাকলিংক কি ?
এর আগে নো ফলো ব্যাক লিংক নেওয়ার রাস্তা আমরা আলোচনা করলাম ইদানিং কথা বলব ডু অনুসরণ ব্যাক ইউআরএল নিয়ে।

সহজ ভাষায় ডু অনুসরণ ব্যাকলিংক সম্মন্ধে যদি আপনাদের মাঝে আলোচনা করি তাহলে বলতে হবে যে ব্যাক ইউআরএল গুলোতে নো ফলো ব্যাকলিংক থাকে না।

সেই ব্যাক ইউআএল-এ ডু ফলো ব্যাক লিংক বলা হয়। এই রকম ডু অনুসরণ ব্যাক লিংক সার্চ ইঞ্জিন ও
পরিদর্শক উভয় ভিজিট করতে পারে।

তা আপনি যদি কক্ষনো ব্যাক লিংক নিয়ে থাকেন তাহলে নিশ্চয়ই আমি পরামর্শ দিব ডু অনুসরণ
ব্যাক লিংক নিতে কেননা আপনারা সার্চ ইঞ্জিন থেকেও ভালো অ্যাডভান্টেজ পাবেন।
আশা করি সম্প্রতি ডু অনুসরণ ব্যাক লিংক ও নো অনুসরণ ব্যাক লিংক সম্পর্কে আপনারা যথেষ্ট আন্দাজ পেয়েছেন।

# কি ভাবে বিনামূল্যে ব্যাক ইউআরএল নেবেন ?
এত ক্ষণে হয়ত আপনারা ব্যাকলিংক এর বুঝে গেছেন এইজন্য আমি আলোচনা করব কি ভাবে আপনারা অনেক সহজেই ব্যাকলিংক নিবেন। নিজের ওয়েবসাইটের জন্য আমরা সবাই চাই ব্যাক লিংক নিতে তবুও ব্যাকলিংক নেওয়ার প্রথমে আপনাকে কিছু বিষয়ে সতর্ক থাকতে হবে।

আপনাকে প্রথমে আপনার ওয়েব সাইটের কন্টেন্ট অনুযায়ী ওয়েব সাইট খুঁজে বের করতে হবে কেননা রিলেটেড ওয়েব সাইট না হলে আপনারা পর্যাপ্ত ভিজিটর পেয়ে যাবেন না।

এরপর আপনাকে বিশ্বস্ত ও বড় ১টি ওয়েব সাইট খুজে বের করতে হবে কেননা সার্চ ইঞ্জিন অপটিমাইজেশনে বেশ ভালো ওয়েবসাইট থেকে ব্যাকলিংক নিলে সেটি কে আলাদা প্রাধান্য দেওয়া হয়। এজন্য আপনাকে ভালো ওয়েব ওয়েবসাইট খুঁজে বের করতে হবে। এরপর আপনারা তলে দেওয়া কয়েকটি নিয়মাবলি ফলো করে ব্যাকলিংক নিতে পারবেন। যেভাবে আপনারা ব্যাক লিংক নিবেনঃ-

১। একদম নব ব্লগারদের জন্য খুবই একটি জনপ্রিয় মাধ্যম হল গেস্ট ব্লগিং করে ব্যাক লিংক প্রস্তুত করা। একজন নতুন ব্লগার গেস্ট ব্লগিংয়ের মাধ্যমে খুব সহজেই তার ওয়েব সাইটের জন্য ব্যাক লিঙ্ক নিতে পারে। যারা নব ব্লগার রয়েছে তাদের জন্য আমি সাজেস্ট করবো গেস্ট ব্লগিং করা করতে।

গেস্ট ব্লগিং সম্মন্ধে যারা জানেন না তাদের একটু বলা হয় নেই যে সাধারণ ভাবে গেস্ট ব্লগিং বলতে আপনি অন্যের ওয়েবসাইটের কনটেন্ট লিখে দিয়ে ওই জায়গা হতে ব্যাক লিংক নিতে পারার উপায়ই হলো গেস্ট ব্লগিং।

গেস্ট ব্লগিং করার আগে আপনার যে ওয়েবসাইট হতে ব্যাকলিংক নিতে চান সেই ওয়েব ওয়েবসাইট টিকে অনেক ভালো ভাবে লক্ষ্য করুন ও সেই ওয়েব ওয়েবসাইটে স্কোর ভালোভাবে যাচাই করে নিবেন। এভাবেই আপনারা গেস্ট ব্লগিং থেকে চমৎকার রেজাল্ট
পেতে পারেন।

২। প্রশ্নের জবাব দেওয়ার দ্বারা হয়তো আপনারা অধিকাংশই লক্ষ্য করে থাকবেন যে বর্তমানে ইন্টারনেট পৃথিবীতে অনেক গুলো প্রশ্ন উত্তর ওয়েবসাইট রয়েছে। যেখানে নানা রকম প্রশ্ন প্রতিনিয়ত করা হয় যদি আপনারা চান ওই জায়গা থেকে অনেক ভালো সংখ্যায় ব্যাকলিংক নিতে পারবেন।

ধরুন একটি বিষয়ে ১টি প্রশ্ন-উত্তর ওয়েবসাইটে প্রশ্ন করেছি সেখানে আপনি আপনার সাধ্যমত সেই প্রশ্নটি যথাযথ জবাব দিবেন সাথে তলে আপনারা রেফারেন্স হিসেবে আপনার ওয়েবসাইটের লিংক যুক্ত করে ঊর্ধ্বে বলে দিলেন যে এইরকম তথ্যের জন্য নিচের ওয়েব সাইটটি ভিজিট করতে পারেন।

তাহলে ওই জায়গা থেকে আপনারা সহজেই পর্যাপ্ত সুন্দর হিসাবে পরিদর্শক পাবেন ও আপনার ব্যাক লিংক খুবই কার্যকর হবে। এটি বর্তমানে খুবই জনপ্রিয় ১টি মাধ্যম ব্যাক লিংক নেওয়ার জন্য।

তো ঊর্ধ্বের দুইটি নিয়ম দিয়ে আপনারা চাইলেই ফ্রীতে ব্যাকলিংক নিতে পারেন। যেকোনো প্রত্যহ নতুন ব্যাপারে জানতে এস এম সুদিপ বিডি এর সাথেই থাকুন।

তো আজকে এ পর্যন্তই। বেশ ভালো থাকুন সুস্থ থাকুন।আমাদের এ ওয়েবসাইট টির সঙ্গেই থাকুন ও
আপনারা জানেন প্রতিনিয়ত এস এম সুদিপ বিডি নানারকম আর্টিকেল পাবলিশ করে থাকে আপনাদের জানার জন্য। তাই প্রত্যহ নিউ কিছু জানতে ও শিখতে 
এস এম সুদিপ বিডি ডট কম এর সাথেই থাকুন।
ধন্যবাদ।

ক্রেডিট বাইঃ- এস এম সুদিপ বিডি ডট কম
ট্যাগঃ- ব্যাকলিংক কি ? ফ্রিতেই ব্যাকলিংক নেওয়ার রাস্তা জেনে নিন!,ব্যাকলিংক কি ? ব্যাক লিংক সৃষ্টি
করুন এক দম ফ্রিতেই !
পোস্ট রেটিং করুন
ট্যাগঃ
About Author
1 comment
Sort by